Home » অর্থনীতি » চীন: পরাশক্তির বিবর্তন-৫৭ : ওয়ান বেল্ট ওয়ান রোড

চীন: পরাশক্তির বিবর্তন-৫৭ : ওয়ান বেল্ট ওয়ান রোড

আনু মুহাম্মদ ::

২০১৩ সালের শেষের দিকে চীন সরকারের পক্ষ থেকে এক জোড়া বিশাল নির্মাণ যজ্ঞ এবং তার সাথে বৈশ্বিক যোগাযোগ ও বাণিজ্যের পরিকল্পনার কথা আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করা হয়। সড়ক ও সমুদ্র পথ দিয়ে দুটো যোগাযোগ নির্মাণ যজ্ঞ হলো – ‘সিল্ক রোড ইকনমিক বেল্ট’ এবং  ‘টুয়েনটি ফার্স্ট সেঞ্চুরি মেরিটাইম সিল্ক রোড’। এই দুটোকে একসাথে বলা হয় ওয়ান বেল্ট ওয়ান রোড।[i] এশিয়ান ইনফ্রাস্ট্রাকচার ইনভেস্টমেন্ট ব্যাংকসহ বিভিন্ন অর্থকরী প্রতিষ্ঠান স্থাপন এবং এই অবকাঠামো সংযোগ উদ্যোগ বৈশ্বিক পর্যায়ে চীনের বিনিয়োগ সম্প্রসারণ এবং তার সাথে অর্থনৈতিক রাজনৈতিক প্রভাব বৃদ্ধির পথ নকশা হিসেবে বিবেচনা করা যায়। এর মধ্যে প্রকাশ ঘটেছে চীনের ভেতরে শিল্প উৎপাদন ক্ষমতা এবং পুঁজি বিনিয়োগের উদ্বৃত্ত ক্ষমতার। কারও কারও ভাষায় চীনের রাষ্ট্রীয় পুঁজিবাদের আত্মসম্প্রসারণের তাগিদেরই এটা বহি:প্রকাশ।

সড়কপথে চীন থেকে পাকিস্তান, তুরস্ক, রাশিয়া, ফ্রান্স, ইটালি আবার সমুদ্রপথে ইটালী থেকে আফ্রিকার বিভিন্ন দেশ স্পর্শ করে মালাক্কা প্রণালী মালয়েশিয়া হয়ে আবার চীন। সিঙ্গাপুরের   ভূমিকা নিয়ে অনিশ্চয়তা থাকার কারণে ভারতীয় মহাসাগর থেকে দক্ষিণ-পশ্চিম চীন পর্যন্ত পাকিস্তান বা বাংলাদেশ হয়ে আরেকটি পথও এই পরিকল্পনার মধ্যে আছে। শ্রীলঙ্কাও এই পথে গুরুত্বপূর্ণ অংশ। সমুদ্রপথের বিভিন্ন বিন্দুতে চীন তাই একাধিক গভীর সমুদ্র বন্দরের কাজে আগ্রহী। প্রথম দিকে রাশিয়া পরিকল্পনায় আগ্রহী না হলেও যুক্তরাষ্ট্র ইউরোপীয় ইউনিয়নের সাথে বিবাদের পর তারা আগ্রহী হয়েছে।

সাম্প্রতিক কালে চীন আন্তর্জাতিক আর্থিক ব্যবস্থাতেও বড়ধরনের ভূমিকা গ্রহণ শুরু করেছে। ব্রিকস সদস্যদেশগুলো সহ (ব্রাজিল, রাশিয়া, ভারত, চীন, দক্ষিণ আফ্রিকা) ‘নিউ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক’ প্রতিষ্ঠা বিদ্যমান আর্থিক ব্যবস্থার ভারসাম্যে বড় পরিবর্তনের ইঙ্গিত দেয়। এছাড়া ‘এশিয়ান ইনফ্রাস্ট্রাকচার ইনভেস্টমেন্ট ব্যাংক’ (এআইআইবি) চীনের প্রায় একক উদ্যোগে এবং পরিচালনায় কাজ শুরু করেছে। যুক্তরাষ্ট্র ঠেকাতে চেষ্টা করলেও ইউরোপসহ বিভিন্ন দেশ এর সদস্য হয়েছে। এছাড়া সিল্ক রোড ফান্ডসহ আরও বেশি কিছু আর্থিক ব্যবস্থার উদ্যোগ অব্যাহত রেখেছে। বিশ্বব্যাংক, আইএমএফ, এডিবি, ইউরোপীয় সেন্ট্রাল ব্যাংকের মতো সংস্থার একক কর্তৃত্বশালী অবস্থার জন্য পরিষ্কার একটি চ্যালেঞ্জ হিসেবে আবির্ভূত হয়েছে চীনের এসব উদ্যোগ।

এসব উদ্যোগের সাথে আর্থিক আয়োজন বিশাল। আগের আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর পক্ষে এতো ব্যয়বহুল প্রকল্পের ভার বহন করা সম্ভব নয়। কিন্তু চীন এই প্রকল্পগুলো একের পর এক গ্রহণ করে যাচ্ছে। সিল্ক রোডের সাথে যুক্ত বিভিন্ন দেশে চীনের যেসব প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে সেগুলোর মোট ব্যয় প্রায় ৯০০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। এআইআইবি, নিউ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক, সিল্ক রোড তহবিল এবং এই নেটওয়ার্কে বিভিন্ন প্রকল্পের ব্যয়ভার বহনে মূল ভূমিকা চীনের বিভিন্ন রাষ্ট্রীয় ব্যাংকের। চীনের কর্মকর্তা জানিয়েছেন, ‘এসব বৃহৎ পুঁজিঘন প্রকল্পগুলো নেবার কারণ হলো চীনের উদ্বৃত্ত আভ্যন্তরীণ সঞ্চয় দেশের ভেতর কম উৎপাদনশীল কাজে ব্যবহার না করে, অতি উৎপাদন ক্ষমতার অপচয় না করে, তা আরও উৎপাদনশীল কাজে লাগানো। যেহেতু ব্যাংকিং খাতেই চীনের আভ্যন্তরীণ সঞ্চয়ের কেন্দ্রীভবন ঘটে সেহেতু এই ব্যাংক এই দায়িত্ব নিতে সক্ষম।’ [ii]

সিএনবিসি-র একই রিপোর্টে আরও বলা হয়েছে, ‘এপর্যন্ত চীনের ব্যাংকগুলো থেকে দেশের বাইরে বিভিন্ন প্রকল্পে যে পরিমাণ ঋণ দেয়া হয়েছে তার পরিমাণ ১.২ ট্রিলিয়ন (বা ১২০০ বিলিয়ন) মার্কিন ডলারে পৌঁছেছে।’ ঋণের পরিমাণ যেরকম অদৃষ্টপূর্ব হারে বাড়ছে তাতে ভবিষ্যতে এই ঋণের পরিশোধ নিয়ে অবশ্য অনেক বিশেষজ্ঞই চিন্তিত!

এটা ঠিকই যে, চীনে পুঁজি পুঞ্জিভবন ঘটছে অনেক দ্রুত হারে এবং রাষ্ট্রীয় ব্যবস্থার কারণে ব্যক্তি পুঁজিপতির পাশাপাশি রাষ্ট্রের হাতেও বিপুল বিনিয়োগযোগ্য পুঁজির সমাবেশ ঘটেছে। এর কারণে পুঁজির চাপ তৈরি হয়েছে অধিকতর মুনাফাযোগ্য বিনিয়োগের। এই বৈশ্বিক সম্প্রসারণের তাগিদ বাস্তবায়ন করতে গিয়ে বিশ্বের বিদ্যমান ভারসাম্যের সাথে চীনকে বোঝাপড়ায় যেতে হচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্র এখন চীনকে হুমকি হিসেবে বিবেচনা করছে, ভারত নিজের ও মার্কিন তাগিদে চীনের তৎপরতা বিষয়ে সতর্ক। সিল্করোডের বাস্তবায়ন তাই সামনে মসৃণ হবে না। ইতিমধ্যে চীন সাগরে কর্তৃত্ব নিয়ে জাপানসহ কয়েকটি দেশের প্রতিবাদ ও প্রতিরোধের মুখে পড়েছে চীন। এরমধ্যে চীনের সামরিক বাজেটও বাড়ানো হয়েছে। এনিয়ে উদ্বেগ দেখা যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র ও ভারতের মধ্যে।


[i]Erebus Wong, Lau Kin Chi, Sit Tsui and Wen Tiejun: One Belt, One Road: China’s Strategy for a New Global Financial Order. Monthly Review, vol 68, issue 08, January 2017.  https://monthlyreview.org/2017/01/01/one-belt-one-road/

[ii]http://www.cnbc.com/2017/01/26/ancient-silk-road-revival-plans-could-be-the-new-risk-to-chinese-banks.html