Home » শিল্প-সংস্কৃতি (page 23)

শিল্প-সংস্কৃতি

বইয়ের দাম বেড়েছে কমেছে বিক্রি

জাকির হোসেন

boi-mela-1-অমর একুশে গ্রন্থমেলা প্রায় শেষ পর্যায়ে চলে এলেও জমে ওঠেনি মেলা। ব্যবসায়িক দিক বিবেচনায় স্মরণকালে এমন মন্দা মেলা আর আসেনি। প্রকাশকরা জানিয়েছেন, বইয়ের দাম বৃদ্ধি, নিত্যপন্যের উর্ধ্বগতিতে মানুষের ক্রয় ক্ষমতা কমে যাওয়া, ভারতীয় সংস্কৃতির আগ্রাসনের বহিঃপ্রকাশ পাইরেটেড বইয়ের অবাদে বিক্রি, শাহবাগ কেন্দ্রিক আন্দোলন এবং দেশের সার্বিক রাজনৈতিক অস্থিরতার কারণেই এমনটি হয়েছে। সব মিলিয়ে এবারের মেলার বিক্রি নিয়ে অসন্তুষ্ঠি প্রকাশ করেছেন অধিকাংশ প্রকাশকরা। অন্যদিকে, বইপ্রেমীরা বলছেন, বইয়ের দাম এবার অনেক বেড়েছে, আমাদের ক্রয়ক্ষমতার বাইরে চলে গেছে। কিন্তু তবুও পছন্দের বইটি কিনতেই হচ্ছে। অন্যদিকে এবার সবচেয়ে বেশি বেড়েছে শিশুদের বইয়ের দাম। চার রঙে ছাপা ৮ পৃষ্ঠার একটি বইয়ের দাম এক শ’ টাকা। শিশুরা মেলায় এলে একটি বা দুটি বই পেয়ে তৃপ্ত হয় না। চারপাঁচটি বই কিনে দিলে তবেই তারা খুশি হয়। ফলে মেলায় এসে প্রিয় শিশুসন্তানের হাসি মুখ দেখতে মিলিয়ে যাচ্ছে অভিভাবকদের মুখের হাসি। শিশুদের বইয়ের দাম ব্যাপকহারে বাড়ার কারণেই এমনটি হচ্ছে। বিস্তারিত »

ভাষা আন্দোলনের আসল প্রেক্ষাপট

হায়দার আকবর খান রনো

21-১৯৫২এর একুশে ফেব্রুয়ারি আমাদের জাতির জীবনে যে একটা মাইলফলক, তা সকলেই স্বীকার করবেন। এমনকি এটাও প্রায় সকলেই মানবেন যে, ২১এর সংগ্রাম থেকেই বাঙালি জাতির জাতীয় চেতনার উন্মেষ ঘটেছিল, যার পরিণতিতে এসেছিল ৭১এর মহান সশস্ত্র সংগ্রাম এবং স্বাধীন বাংলাদেশ।

কিন্তু একুশের তাৎপর্য তার চেয়েও বেশি। শুধুমাত্র ভাষার সংগ্রাম বা জাতীয় সংগ্রাম বললে তাকে রাজনৈতিক ভাষায় বুর্জোয়া বা পেটিবুর্জোয়া সংগ্রাম বলেই চিহ্নিত করতে হয়। বিস্তারিত »

ডোরেমন বন্ধ – স্বাগতম, ভারতীয় সিরিয়ালের কি হবে?

ফ্লোরা সরকার

doremonজাপানের লেখক ফুজিকো এফ ফুজিওর লেখা “ডোরেমন” নামক টিভি কার্টুনটি প্রথম পর্যায়ে কমিকস বই আকারে প্রথম ছাপা শুরু হয় ১৯৬৯ সালে জাপানের ছয়টি বিভিন্ন মাসিক ম্যাগাজিনে। মোট ১৩৪৪ টি গল্প নিয়ে জাপানের শোগাকুকান পাবলিশার এর হাত ধরে তা ছাপা শুরু হয়। ভি.আই.জেড মিডিয়া (যুক্তরাষ্ট্রের সান ফ্রান্সিসকোয় অবস্থিত একটি জাপানি এন্টারটেইনমেন্ট কোম্পানি, যার মালিক যৌথভাবে শোগাকুকান ও গুইশা পাবলিশার্স) শোগাকুকান প্রডাকশান থেকে কার্টুনের লাইসেন্স কিনে ১৯৯০ সালের দিকে এই কার্টুনের ইংরেজি অনুবাদ যুক্তরাষ্ট্রে প্রদর্শনের ব্যবস্থা করলে এক অজানা কারণে তা বন্ধ হয়ে যায়। বিস্তারিত »

মানুষের বিভেদ ও ঐক্য – সাম্প্রদায়িকতা প্রসঙ্গ – ৫

আনু মুহাম্মদ

Anu_Mohammad-2দখলদার বা আক্রমণকারীরা কোথাও কোথাও যেমন দলনির্বিশেষে মুসলমান হয়ে যায়, আবার যেখানে শিকার জাতিগত সংখ্যালঘু,সেখানে দলনির্বিশেষে হয়ে যায় বাঙালি। পার্বত্য চট্টগ্রামে তাই জাতিগত সহিংসতা, সামরিকীকরণ, নির্যাতন, খুন, ধর্ষণ, জমিপাহাড় দখল ইত্যাদিতে কখনও বাঙালি কখনও মুসলমান হবার ক্ষেত্রে আওয়ামী লীগ, বিএনপি, জামায়াত ও জাতীয় পার্টির ঐক্য ঠিকই টিকে থাকে। বিস্তারিত »

“আরগো” – সাম্রাজ্যবাদী মুখ ও মুখোশ

ফ্লোরা সরকার

filmএবারের অস্কার মনোনয়নে যেসব সিনেমা আলোচনার শীর্ষে অবস্থান করছে ‘আরগো’ ছবিটি তার মধ্যে অন্যতম একটি। ছবিটি ইতিমধ্যে বেশ আলোচিত, সমালোচিত এবং প্রশংসিত হয়েছে। তবে যতটা না সমালোচিত হয়েছে, তার চাইতে বেশি হয়েছে প্রশংসিত। প্রশংসিত যতটা না তার নির্মাণ শৈলী বা বিষয়বস্তুর কারণে, তার চাইতে অধিক রাজনৈতিক কারণে। বিশেষত আমেরিকাবাসীর কাছে। কেননা ছবিটিতে স্পাইডার ম্যান, ব্যাট ম্যান বা জেমসবন্ডের মতো সুপার হিরো সুলভ একটি আমেজ আছে, যেখানে বীরগাথা নায়কদের মতো এই ছবির নায়কও একটি অসম্ভব জয় ছিনিয়ে নিয়ে আসেন। যে অসম্ভবের কাহিনী কোন রূপকথা বা সায়েন্সফিকশানের কাহিনী নয়, একেবারে নিকট অতীতের একটি সত্য এবং বাস্তব কাহিনী থেকে তুলে আনা হয়েছে। বিস্তারিত »

মানুষের বিভেদ ও ঐক্য – সাম্প্রদায়িকতা প্রসঙ্গ – ৪

আনু মুহাম্মদ

Anu_Mohammad-2তাছাড়া মার্কিনীদের নেতৃত্বে সন্ত্রাসী সাম্প্রদায়িক দখলদার ফ্যাসিবাদী বিশ্বব্যবস্থা চলছে এখন। আমরা তার মধ্যেই আছি। বাংলাদেশে সমুদ্র ও স্থলভাগে তাদের যে আগ্রাসী তৎপরতা, সেখানে সম্পদ ও ভৌগোলিক গুরুত্ব ইত্যাদি বিভিন্ন কারণে বৃহত্তর চট্টগ্রাম অঞ্চল বিশেষ গুরুত্ব পাচ্ছে। ইতিহাসের এই পর্বে ইসলামপন্থী সন্ত্রাসী তাদের আধিপত্য বিস্তারের মডেলে অত্যন্ত সুবিধাজনক। যুক্তরাষ্ট্রচীনভারত ঐক্য ও বিবাদ দুটোই বাংলাদেশের মতো দেশের জন্য বড় ঝুঁকির বিষয়। বন্দর ও ট্রানজিট ঘিরে ভারতের আঞ্চলিক কৌশলও বিশেষ মনোযোগের দাবিদার। বিস্তারিত »

“দ্যা ব্ল্যাকবোর্ডস” – একটি অবশ্য-পাঠ্য সিনেমা

ফ্লোরা সরকার

blackboards-1একটি মানসম্পন্ন উপন্যাস বা গল্প একদিকে যেমন শুধু সুখপাঠ্যই হয়না পাঠকের ভাবনার জগতে নতুন মাত্রা যোগ করে, অন্যদিকে ঠিক তেমনিভাবে একটি ভালো চলচ্চিত্র শুধু চিত্তবিনোদনই করেনা, সেই সঙ্গে পাঠযোগ্যও করে তোলে। আর তাই সিনেমা শুধু দর্শনকাব্য নয় তা পঠনকাব্যও বটে। অর্থাৎ সিনেমা শুধু দেখতে জানলেই হয়না, তাকে পাঠ করতেও জানতে হয়। আপাত দৃষ্টিতে সিনেমা যতটা না চিত্তবিনোদনের, প্রকৃত প্রস্তাবে তা তার চাইতে অতিরিক্ত কিছু। এই অতিরিক্ত কিছু নিয়েই সিনেমা তার গল্প, তার ভাষা নিয়ে বেড়ে ওঠে। যে ভাষাকে আমরা পঠনযোগ্য বলছি। কেননা যে কোন বিনোদন স্বল্পস্থায়ী। বিনোদন পর্বের সমাপ্তির সঙ্গে সঙ্গে চিত্তের আনন্দের সমাপ্তি ঘটে। কিন্তু বিনোদনের সঙ্গে যখন ভাবনার বিষয়টা সংযুক্ত হয় তখন যে কোন সিনেমা ভিন্ন একটি জগৎ সৃষ্টি করে, যে জগতের অবয়ব কোন সংজ্ঞা দিয়ে ধরা যায় না। সংস্কৃত নাট্যবিশারদগণ তাই নাটককে বলেছেন, নাটক শুধু দর্শনকাব্য নয়, তা শ্রবণকাব্যও বটে। বিস্তারিত »