Home » শিল্প-সংস্কৃতি (page 4)

শিল্প-সংস্কৃতি

সিনেমার প্রতিবাদী কিংবদন্তী – ওরসন ওয়েলস (প্রথম পর্ব)

ফ্লোরা সরকার

Last 6হলিউডের সিনেমা জগতে ওরসন ওয়েলস একজন কিংবদন্তীর নাম। মাত্র পঁচিশ বছর বয়সেই শুরু করেছিলেন তার অভিনীত এবং পরিচালিত পৃথিবী বিখ্যাত ছবি ‘সিটিজেন কেন (১৯৪১)। যাত্রার শুরুতেই যিনি কাঁপিয়ে দিয়েছিলেন হলিউড এবং বিশ্ব সিনেমা জগতকে। শুধু ছবি নয়, একাধারে, মঞ্চ এবং রেডিওতেও তিনি ছিলেন একজন সক্রিয় শিল্পকর্মী। শেক্সপীয়রের বিখ্যাত নাটকগুলোর অসাধারণ চিত্রায়ন করেছেন। অনেকের তোপের মুখে পড়েছেন তার বামপন্থী এবং কমিউনিস্ট পার্টির প্রতি আগ্রহের কারণে। হলিউড ঘারানার বিপরীতে গিয়ে সিনেমা নির্মাণ তার জন্যে ছিলো একটি চ্যালেঞ্জেলের মতো। সবকিছু অতিক্রম করে, শেষ পর্যন্ত তিনি একজন সার্থক অভিনেতা এবং নির্মাতা হয়ে রইলেন। গত ৬ মে ছিলো তার জন্মশতবার্ষিকী। তার জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে গত ৪ জুন মহান এই শিল্পীর প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে ডেভিড ওয়েলস এবং জোয়ান লরিয়ের তার চলচ্চিত্র কর্মের উপর একটি ওয়েবসাইটে বিশেষ প্রতিবেদন প্রকাশ করেন। তার প্রধান ও গুরুত্বপূর্ণ অংশগুলো ধারাবাহিকভাবে প্রকাশ করা হলো। বিস্তারিত »

তথ্যের অবাধ গতি ও গণতন্ত্র হ্যাকিং-এর গল্প

ফ্লোরা সরকার

Last 6মোটা দাগে পশ্চিমের সঙ্গে আমাদের মূল যে পার্থক্যটা ধরা পড়ে তা হলো সময়কে ধরতে পারা এবং না পারার সমার্থ এবং অসমার্থ চলমান সময়কে যতটা পারঙ্গমতার সঙ্গে পশ্চিমারা ধরতে পারে আমরা তার থেকে শুধু পিছিয়েই থাকিনা, অতীতকে ধরে আঁকড়ে থাকি। যদিও পশ্চিমের একটা প্রবণতা থাকে অতীতকে অস্বীকার করার, পরিবর্তিত করে ফেলার, বিশেষ করে সেসব অতীত যা তাদের বিব্রত করে, অস্বস্ততিতে ফেলে দেয়। তবু শিল্পকর্মে নিয়োজিত কেউ কেউ থাকেন যারা অতীতকে স্মরণ করেন, অতীতকে গুরুত্বের সঙ্গে দেখেন, যাতে করে অতীতের পুনরাবৃত্তি না ঘটে সেসব থেকে সাবধান হবার জন্যে। বিস্তারিত »

বামপন্থী রাজনীতির অবস্থা প্রসঙ্গে :: আহমদ ছফা (শেষ পর্ব)

বামপন্থার বিকাশের নতুন সম্ভাবনাগুলো খুঁজে বের করার এখনই প্রকৃষ্ট সময়।যে সকল কারণে বামপন্থী রাজনীতি এদেশের প্রধান রাজনৈতিক ধারা হয়ে উঠতে পারেনি সেগুলোরও একটা খতিয়ান করা প্রয়োজন

Last 3সুবিধাবাদী, আপোষকামী, লাভালাভ বিবেচনায় নীতিবদল এবং এ কারণে মিথ্যাকে সত্য বলে বয়ান করার মানসিকতার একেবারেই বিপক্ষ দলের একজন মানুষ ছিলেন আহমদ ছফা। সত্যকে সত্য বলার, ন্যায়অন্যায় বিবেচনার সূক্ষ্ম বোধবুদ্ধিসম্পন্ন একজন বিরল মানুষ ছিলেন তিনি। সব সময়ই স্পষ্ট এবং অপ্রিয় কথাগুলো তিনি বলতেন নির্দ্ধিধায়, ভয়ভীতিহীনভাবে। দেশ এবং সাধারণ মানুষের প্রতি অসীম ভালোবাসার কারণে রাষ্ট্র ও সমাজের অবিচার, অনাচার এবং বুদ্ধিজীবী নামধারী চাটুকারদের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো, প্রতিবাদ করার সক্ষমতা, দৃঢ়তা এবং ঋজু চরিত্রের অধিকারী ছিলেন বলেই তিনি হয়ে উঠেছিলেন তার সময়কালের হাতেগোনা দু’চারজনের মধ্যে সবচেয়ে অগ্রগামী। তাঁর জন্ম ১৯৪৩ সালের ৩০ জুন, আর প্রয়ান ২০০১ সালের ২৮ জুলাই। মহান, কৃর্তিমান ও সাহসী আহমদ ছফা’র প্রতি আমাদের অসীম শ্রদ্ধা। এই শ্রদ্ধা জানানোর উদ্দেশ্যেই তার লিখিত প্রাচ্যবিদ্যা প্রকাশনীর ‘সাম্প্রতিক বিবেচনা বুদ্ধিবৃত্তির নতুন বিন্যাস’ বইয়ের অংশ বিশেষ পুনঃপ্রকাশিত হলো। সম্পাদক বিস্তারিত »

প্রগতিশীল সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক আন্দোলনের গোড়ার কথা (শেষ পর্ব)

Last 4প্রথম ও দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের মধ্যবর্তী সময়ে পুঁজিবাদী অর্থনীতিকে মহামন্দায় আক্রান্ত হয়। মহামন্দার কবলে পড়ে বিশ্ব রাজনৈতিকভাবে পর্যুদস্ত হয়ে পড়ে। জনজীবন ভয়াবহ দুঃস্বপ্নের বাস্তবতায় তাড়িত হয়ে পড়ে। সেই সময় নতুন রাজনৈতিক মতবাদ বিশ্ব তথা ভারতীয় উপমহাদেশের কোটি কোটি মানুষের মনে নতুন আশার সঞ্চার করে। রাজনীতিকে শাণিত করে সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ড। অবিভক্ত ভারতের সেই সময়কার একদল সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক কর্মী নতুন মতাদর্শ নিয়ে সংস্কৃতির জগত আলোড়িত করেন। গড়ে তোলেন প্রগ্রেসিভ রাইটার্স অ্যাসোসিয়েশন বা প্রগতিশীল লেখক সংঘ। পুঁজিবাদের বর্তমান বিশ্বায়ন তত্ত্বের ক্লেদাক্ত সময়ে পুনরায় আর একটি মহামন্দার আবহে বর্তমান সাহিত্য ও সংস্কৃতিও নির্জীব। সাহিত্য ও সংস্কৃতির এই অবক্ষয়ের সময়ে নতুন সাহিত্য ও সংস্কৃতি আন্দোলনের ধারাটি কী হওয়া উচিত তা বুঝতে প্রগতিশীল লেখক সংঘের ইতিহাস জানা তাই আবশ্যক। অজয় আশীর্বাদ মহাপ্রশস্তের এই লেখাটির ভাষান্তর করা হলো। বিস্তারিত »

স্মরণ :: প্রবাদপ্রতিম নাট্য ব্যক্তিত্ব শম্ভু মিত্র

ফ্লোরা সরকার

last 6অভিনয়ে তথাকথিত ন্যাচারিলিজমএ আমি কোনো দিন আনন্দ পাইনি। বিরাট মানুষের বিরাট দুঃখ বা বিরাট আবেগ আমাকে অনেক বেশি মুগ্ধ করে। অভিনয়ের চরিত্র যদি অভিনয়ের চরিত্রের চেয়ে অনেক সরল ও সহজতর হয় তাহলে অভিনয়ের মধ্যে সেই দ্যুতির মুহূর্তগুলো আসে না, যার অভাবে ভালো অভিনয়ও স্মরণীয় অভিনয় হয় না’ ঠিক এভাবেই ‘শিশির কুমার ভাদুড়ি’ (১৯৫৯) স্মরণে কথাগুলো বলেছিলেন অভিনেতা শম্ভু মিত্র।

মঞ্চনাটক এমনই এক জায়গা, যেখানে ন্যাচারিলিজমের কোনো স্থান নেই। এই ন্যাচারিলিজমের অনুপস্থিতির কারণেই মঞ্চনাটকের অভিনয় অন্যান্য মাধ্যমের অভিনয় যেমন টিভি অথবা চলচ্চিত্র থেকে একেবারেই ভিন্ন ধাচের হয়ে থাকে। তার মূল কারণ, দূরত্ব। বিস্তারিত »

বামপন্থী রাজনীতির অবস্থা প্রসঙ্গে :: আহমদ ছফা (দ্বিতীয় পর্ব)

জাসদ দলটিকে বামধারার রাজনীতির সঙ্গে এক করে দেখা বোধকরি ঠিক হবে না

Last 3সুবিধাবাদী, আপোষকামী, লাভালাভ বিবেচনায় নীতিবদল এবং এ কারণে মিথ্যাকে সত্য বলে বয়ান করার মানসিকতার একেবারেই বিপক্ষ দলের একজন মানুষ ছিলেন আহমদ ছফা। সত্যকে সত্য বলার, ন্যায়অন্যায় বিবেচনার সূক্ষ্ম বোধবুদ্ধিসম্পন্ন একজন বিরল মানুষ ছিলেন তিনি। সব সময়ই স্পষ্ট এবং অপ্রিয় কথাগুলো তিনি বলতেন নির্দ্ধিধায়, ভয়ভীতিহীনভাবে। দেশ এবং সাধারণ মানুষের প্রতি অসীম ভালোবাসার কারণে রাষ্ট্র ও সমাজের অবিচার, অনাচার এবং বুদ্ধিজীবী নামধারী চাটুকারদের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো, প্রতিবাদ করার সক্ষমতা, দৃঢ়তা এবং ঋজু চরিত্রের অধিকারী ছিলেন বলেই তিনি হয়ে উঠেছিলেন তার সময়কালের হাতেগোনা দু’চারজনের মধ্যে সবচেয়ে অগ্রগামী। তাঁর জন্ম ১৯৪৩ সালের ৩০ জুন, আর প্রয়ান ২০০১ সালের ২৮ জুলাই। মহান, কৃর্তিমান ও সাহসী আহমদ ছফা’র প্রতি আমাদের অসীম শ্রদ্ধা। এই শ্রদ্ধা জানানোর উদ্দেশ্যেই তার লিখিত প্রাচ্যবিদ্যা প্রকাশনীর ‘সাম্প্রতিক বিবেচনা বুদ্ধিবৃত্তির নতুন বিন্যাস’ বইয়ের অংশ বিশেষ পুনঃপ্রকাশিত হলো।। সম্পাদক বিস্তারিত »

প্রগতিশীল সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক আন্দোলনের গোড়ার কথা (দ্বিতীয় পর্ব)

Last 4প্রথম ও দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের মধ্যবর্তী সময়ে পুঁজিবাদী অর্থনীতিকে মহামন্দায় আক্রান্ত হয়। মহামন্দার কবলে পড়ে বিশ্ব রাজনৈতিকভাবে পর্যুদস্ত হয়ে পড়ে। জনজীবন ভয়াবহ দুঃস্বপ্নের বাস্তবতায় তাড়িত হয়ে পড়ে। সেই সময় নতুন রাজনৈতিক মতবাদ বিশ্ব তথা ভারতীয় উপমহাদেশের কোটি কোটি মানুষের মনে নতুন আশার সঞ্চার করে। রাজনীতিকে শাণিত করে সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ড। অবিভক্ত ভারতের সেই সময়কার একদল সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক কর্মী নতুন মতাদর্শ নিয়ে সংস্কৃতির জগত আলোড়িত করেন। গড়ে তোলেন প্রগ্রেসিভ রাইটার্স অ্যাসোসিয়েশন বা প্রগতিশীল লেখক সংঘ। পুঁজিবাদের বর্তমান বিশ্বায়ন তত্ত্বের ক্লেদাক্ত সময়ে পুনরায় আর একটি মহামন্দার আবহে বর্তমান সাহিত্য ও সংস্কৃতিও নির্জীব। সাহিত্য ও সংস্কৃতির এই অবক্ষয়ের সময়ে নতুন সাহিত্য ও সংস্কৃতি আন্দোলনের ধারাটি কী হওয়া উচিত তা বুঝতে প্রগতিশীল লেখক সংঘের ইতিহাস জানা তাই আবশ্যক। অজয় আশীর্বাদ মহাপ্রশস্তের এই লেখাটির ভাষান্তর করা হলো। বিস্তারিত »