Home » শিল্প-সংস্কৃতি (page 5)

শিল্প-সংস্কৃতি

প্রগতিশীল সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক আন্দোলনের গোড়ার কথা (প্রথম পর্ব)

Last 4প্রথম ও দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের মধ্যবর্তী সময়ে পুজিবাদী অর্থনীতি কে মহামন্দায় আক্রান্ত হয়। মহামন্দার কবলে পড়ে বিশ্ব রাজনৈতিকভাবে পর্যুদস্ত হয়ে পড়ে। জনজীবন ভয়াবহ দুঃস্বপ্নের বাস্তবতায় তাড়িত হয়ে পড়ে। সেই সময় নতুন রাজনৈতিক মতবাদ বিশ্ব তথা ভারতীয় উপমহাদেশের কোটি কোটি মানুষের মনে নতুন আশার সঞ্চার করে। রাজনীতিকে শাণিত করে সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ড। অবিভক্ত ভারতের সেই সময়কার একদল সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক কর্মী নতুন মতাদর্শ নিয়ে সংস্কৃতির জগত আলোড়িত করেন। গড়ে তোলেন প্রগ্রেসিভ রাইটার্স অ্যাসোসিয়েশন বা প্রগতিশীল লেখক সংঘ। পুজিবাদের বর্তমান বিশ্বায়ন তত্ত্বের ক্লেদাক্ত সময়ে পুনরায় আর একটি মহামন্দার আবহে বর্তমান সাহিত্য ও সংস্কৃতিও নির্জীব। সাহিত্য ও সংস্কৃতির এই অবক্ষয়ের সময়ে নতুন সাহিত্য ও সংস্কৃতি আন্দোলনের ধারাটি কী হওয়া উচিত তা বুঝতে প্রগতিশীল লেখক সংঘের ইতিহাস জানা তাই আবশ্যক। অজয় আর্শীবাদ মহাপ্রশস্তের এই লেখাটির ভাষান্তর করা হলো। বিস্তারিত »

অধিকার আদায়ের লড়াই-সংগ্রাম শিল্প-সংস্কৃতিতে

ফ্লোরা সরকার

Last 7গত পয়লা মে, ২০১৫, বার্লিন শহরের অ্যালেক্সজান্দার প্লাজে অভিনব এক উন্মুক্ত ভাস্কর্য প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হয়ে গেলো। ব্রোঞ্জ নির্মিত তিনটি ভাস্কর্য। তিনটি ভাস্কর্য বর্তমান বিখ্যাত তিনজন ব্যক্তি যারা ‘হুইসেলব্লোয়ার’ (ব্যক্তিগত এবং সরকারি গোপন কুকীর্তি যারা ফাঁস করে দেন) নামে পরিচিত, তাদেরকে নিয়ে নির্মাণ করা হয়েছে। সেই তিনজন হলেন এডওয়ার্ড স্নোডেন, জুলিয়ান অ্যাসেঞ্জ এবং ব্র্যাডলি ম্যানিং। ইরাক যুদ্ধ, আফগানিস্তান যুদ্ধ এবং ওসামা বিন লাদেনের হত্যারহস্য সহ সাম্প্রতিক ঘটে যাওয়া আরো ঘটনার বিভিন্ন গোপন নথিপত্র যারা ফাঁস করে দিয়ে মার্কির্নিসহ পশ্চিমীদের নজরে এসেছেন এবং নানাভাবে রাজনৈতিক হয়রানির শিকার হচ্ছেন এখনো এবং যাদের সাহসী কর্মকান্ডের জন্যে পৃথিবীর প্রায় সব দেশের অসংখ্য সাধারণ মানুষ শ্রদ্ধার সঙ্গে তাদের স্মরণ করেন প্রতিনিয়ত। বিস্তারিত »

চলচ্চিত্র কীভাবে সীমান্ত পার হয় (তৃতীয় পর্ব)

মিহির ভট্টাচার্য

Last 5বিশ্বায়নের এই মধ্যগগনে সুঁচ থেকে শুরু করে উড়োজাহাজ পর্যন্ত যেখানে দেশ থেকে দেশান্তরিত হয়, সেখানে চলচ্চিত্রের মতো একটা শিল্পমাধ্যমের সীমান্ত পাড়ি দেয়া খুবই স্বাভাবিক। তবে বাণিজ্যের সাথে সংস্কৃতিও যখন একতরফা আদানপ্রদান হয় তা কখনো গ্রহণযোগ্য হতে পারে না। একতরফা গ্রহণ দেশজ রাজনীতিঅর্থনীতির মতো চলচ্চিত্রেও ভয়াবহ রূপ নেয়। ‘বিশ্বায়ন ভাবনাদুর্ভাবনা’ নামে প্রকাশিত বিশ্বায়নের উপর ভারতের যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ও চলচ্চিত্র বিশ্লেষক মিহির ভট্টাচার্য বেশকিছু প্রবন্ধ ছাপা হয়। চলচ্চিত্রের সীমান্ত পারাপারারের উপরও বিশ্লেষণী একটি প্রবন্ধ তিনি লিখেছেন। সেই দীর্ঘ প্রবন্ধের বিশেষ বিশেষ উল্লেখযোগ্য অংশ ধারাবাহিকভাবে পুনঃপ্রকাশিত হচ্ছে।।

আজ পর্যন্ত হিসাব হলে দেখা যাবে যে, লাভের অঙ্ক একশ কোটি বা বিলিয়ন ডলার ছাড়িয়ে গেছে। এই ব্যবসায় বিরাট ঝুঁকি আছে বটে, তবে মুনাফার মাত্র এতটাই যে ধুরন্ধর মহাজন ব্যাঙ্কগুলো পর্যন্ত দেখেশুনে লগ্নি করতে দ্বিধা করে না। বিস্তারিত »

চলচ্চিত্র কীভাবে সীমান্ত পার হয় (দ্বিতীয় পর্ব)

মিহির ভট্টাচার্য

last 5বিশ্বায়নের এই মধ্যগগনে সুঁচ থেকে শুরু করে উড়োজাহাজ পর্যন্ত যেখানে দেশ থেকে দেশান্তরিত হয়, সেখানে চলচ্চিত্রের মতো একটা শিল্পমাধ্যমের সীমান্ত পাড়ি দেয়া খুবই স্বাভাবিক। তবে বাণিজ্যের সাথে সংস্কৃতিও যখন একতরফা আদানপ্রদান হয় তা কখনো গ্রহণযোগ্য হতে পারে না। একতরফা গ্রহণ দেশজ রাজনীতিঅর্থনীতির মতো চলচ্চিত্রেও ভয়াবহ রূপ নেয়। ‘বিশ্বায়ন ভাবনাদুর্ভাবনা’ নামে প্রকাশিত বিশ্বায়নের উপর ভারতের যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ও চলচ্চিত্র বিশ্লেষক মিহির ভট্টাচার্য বেশকিছু প্রবন্ধ ছাপা হয়। চলচ্চিত্রের সীমান্ত পারাপারারের উপরও বিশ্লেষণী একটি প্রবন্ধ তিনি লিখেছেন। সেই দীর্ঘ প্রবন্ধের বিশেষ বিশেষ উল্লেখযোগ্য অংশ ধারাবাহিকভাবে পুনঃপ্রকাশিত হচ্ছে

রবীন্দ্রনাথ বা জীবনানন্দ বা সুধীন্দ্রনাথ আমাদের কাছে বাজারের নিয়ম মেনেই পৌঁছায় : পান্ডুলিপি থেকে তৈরি হয়েছিলো ছাপা বই, প্রকাশক তার দাম ঠিক করে দিয়েছিলো, বিক্রেতার কাছ থেকে টাকা নিয়ে কিনেছে পাঠক, তবে তো তার চৈতন্যের গোচরে এসেছে অমর কবিতার সম্ভার। অনেক সাংস্কৃতিক বাজার সারা দুনিয়া জুড়ে রয়েছে। বিস্তারিত »

চলচ্চিত্রের সীমান্ত পারাপার (প্রথম পর্ব)

মিহির ভট্টাচার্য

LAST 6বিশ্বায়নের এই মহালগ্নের মধ্যগগনে সুঁচ থেকে শুরু করে উড়োজাহাজ পর্যন্ত যেখানে দেশ থেকে দেশান্তরিত হয়, সেখানে চলচ্চিত্রের মতো একটা শিল্পমাধ্যমের সীমান্ত পাড়ি দেয়া কোনো বিষয় নয়। একটা পণ্য যখন সীমান্ত অতিক্রম করে তার সঙ্গে শুধু সেই পণ্যই অতিক্রম করেনা তার সঙ্গে সেই পণ্যের সমাজ, সংস্কৃতি, রুচি, কৃষ্টি সবই একযোগে পার হয়। ভাতেমাছে বাঙালি এখন অনায়াসে বার্গার, চিকেনফ্রাই, পিৎজা সংস্কৃতির সঙ্গে খাপ খাইয়ে নিয়েছে। আধুনিক এলিট শ্রেণীর যুবকযুবতীদের দেখে বোঝার উপায় নেই তারা ‘ইস্টার্ন নাকি ওয়েস্টার্ন’। তাদের আধো আধো বাংলাইংরেজি মিশেলের কথাবার্তা আমাদের বিড়ম্বনায় ফেলে দেয় তারা কোন ভাষাভাষির মানুষ। বিস্তারিত »

বিপ্লব আর সাম্রাজ্যবাদ বিরোধিতার কবি – নাজিম হিকমত

LAST 5(নাজিম হিকমত, বিংশ শতাব্দীর পৃথিবীতে প্রধানতম কবিদের একজন। তুরস্কে জন্মগ্রহণকারী এই মহান বিপ্লবী সাম্রাজ্যবাদ বিরোধিতা এবং সামগ্রিক অর্থে শ্রমিককৃষকসহ সাধারণ মানুষের প্রতি তার ভালোবাসার কারণে পরিণত হয়েছেন আন্তর্জাতিক এক নাগরিকে। বিপ্লবের আকাঙ্খা এবং সাম্রাজ্যবাদ বিরোধিতার কারণে জীবনের কমপক্ষে ২০ বছর তিনি কাটিয়েছেন জেলখানায়। বিপ্লব আর মুক্তির কথা বললেও তার কবিতা গীতিময়তায় ঋদ্ধ, রোমান্টিকতায় পরিপূর্ণ। নাজিম হিকমত তার কবিতায় ভালোবাসার কথা যেমন বলেছেন, তেমনি জীবনের প্রতি তার তীব্র আকাঙ্খাও প্রতিফলিত হয়েছে। তবে সব কিছুর উপরে তার অনন্যতা এখানে যে, ভালোবাসা, রোমান্টিকতা, জীবন সব কিছুর ভেতর দিয়েই বিপ্লবের জয়গান গেয়েছেন। বিপ্লবী এই কবির জন্ম ১৫ জানুয়ারি, ১৯০২ এবং মৃত্যু ৩ জুন, ১৯৬৩। এই মহান বিপ্লবীর প্রতি আমাদের বুধবারএর পক্ষ থেকে অসীম শ্রদ্ধা।) বিস্তারিত »

নস্টালজিয়া ফর দ্য লাইট (শেষ পর্ব)

ফ্লোরা সরকার

LAST 7ভিক্টোর গঞ্জালেজ, সফটওয়ের ইঞ্জিনিয়ার, চিলির প্রধান টেলিস্কোপ প্রতিষ্ঠান ALMAয় কর্মরত। ভিক্টোর চিলির নাগরিক হলেও, তার জন্ম জার্মানিতে। কারণ তার মা যখন অন্তসত্তা তখন তাকে নির্বাসনে যেতে হয় সেখানে। ভিক্টোরকে যখন জিজ্ঞেস করা হয়, তোমার জন্ম জার্মানিতে। তার মানে তুমি একজন নির্বাসিত শিশু। বিষয়টা কেমন লাগে ? উত্তরে ভিক্টোর বলে, ‘আসলে আমি কোনো জায়গারই নই। না জার্মানির, না চিলির। তবু নিজেকে আমি একজন চিলিয়ান মনে করি।’ এই মনোবলের কারণেই মায়ের অনুপ্রেরণায় ভিক্টোর একজন ইঞ্জিনিয়ার হতে পেরেছেন। ভিক্টোর ইঞ্জিনিয়ার হতে পারলেও, বিশাল সেই অ্যাটাকামা মরুভূমিতে আমরা দেখি একদল স্বজনহারা নারী তাদের হারিয়ে যাওয়া স্বজনদের হাড়গোড় খুঁজে বেড়াচ্ছেন বিশাল মরুভূমির প্রান্তরে। বিস্তারিত »