Home » শিল্প-সংস্কৃতি (page 6)

শিল্প-সংস্কৃতি

নস্টালজিয়া ফর দ্য লাইট (দ্বিতীয় পর্ব)

ফ্লোরা সরকার

Last 6বর্তমানের কোনো অস্তিত্ব নেই, আমাদের সবটাই অতীত, আমরা অতীতের মাঝে বসবাসে অভ্যস্ত’ গ্যাসপার গালাজ এভাবে যখন কথাটা বলেন তখন আমরা চমকে না উঠে পারিনা। কারণ কথাটা কোনো দার্শনিক জায়গা থেকে বলা হয়না, নির্ভেজাল বিজ্ঞানের জায়গা থেকে বলা হয়। অথচ একই কথা দার্শনিক হাইদেগার যখন তার বিখ্যাত ‘dasein বা ‘আছে ময়তা’ এর ব্যাখা দিতে গিয়ে বলেন, ‘আপাতদৃষ্টিতে মনে হয়, যেখানেই আমরা গতির অনুসরণ করি সেখানেই যেন সময়কে পেয়ে যাওয়া উচিত, সময় যেন গতির সাথে যুক্ত। বিস্তারিত »

চীন :: পরাশক্তির বিবর্তন (পর্ব – ১৮)

পাল্টে দেয়ার কাহিনী :: ফানশেন

আনু মুহাম্মদ

Last 3চীনে বিপ্লবী সরকার ক্ষমতাসীন হবার আগে থেকেই লালফৌজ নিয়ন্ত্রিত বিভিন্ন সোভিয়েত এলাকা বা মুক্তাঞ্চলে ভূমি সংস্কারের কাজ শুরু হয়। ১৯৪৭ সালের শেষদিকে খসড়া কৃষি আইন প্রণয়ন করা হয় এবং তা ঘোষণা করা হয় একই বছরের ২৮ ডিসেম্বর। মুক্তাঞ্চলের বিভিন্ন গ্রামে এই আইন কার্যকর করতে করতে অভিজ্ঞতার মধ্য দিয়ে নানারকম সংযোজন বিয়োজনও চলতে থাকে।

এই আইনের ১ নম্বর ধারায় বলা হয়, সামন্তবাদী ও আধা সামন্তবাদী শোষণমূলক কৃষি ব্যবস্থার চিরসমাপ্তি ঘটানো হবে এবং ‘লাঙল যার জমি তার’ এই নীতি বাস্তবায়ন করা হবে। ২ নম্বর ধারায় বলা হয়, সামন্তপ্রভুদের ভূমি মালিকানার অধিকার বিলুপ্ত করা হবে। ৪ নম্বর ধারায় বলা হয়, সংস্কারের আগে গ্রামের মানুষের ওপর চাপানো সকল ঋণ বাতিল করা হবে। ৬ নম্বর ধারায় বলা হয়, গ্রামে জোতদারের সব জমি গ্রহণ করবে গ্রামের চাষী সমিতি। এই জমিসহ গ্রামের সকল জমি নিয়ে সমিতি গ্রামের সকল মানুষের মধ্যে (নারীপুরুষশিশুবৃদ্ধ) বিতরণ করবে। বিতরণের সময় বেশি উর্বর কম উর্বর বিবেচনা করতে হবে। বিস্তারিত »

রাষ্ট্রীয়ভাবে নিখোঁজ হওয়াদের নিয়ে প্রামাণ্যচিত্র নস্টালজিয়া ফর দ্য লাইট (প্রথম পর্ব)

ফ্লোরা সরকার

last 7অবৈধ উপায়ে আসা যে কোনো সরকার, সেটা সেনাবাহিনী কর্তৃক অথবা নির্বাচন বর্হিভূত কিংবা যেনতেন নির্বাচন বা কারচুপির নির্বাচনের মাধ্যমেই হোক যে কোনো প্রকারেই শাসনকাজে নিয়োজিত হোক না কেনো, সেই সরকার স্বৈরতান্ত্রিক হতে বাধ্য। কেননা, জনগণের রায়ে গণতান্ত্রিক উপায়ে কোনো সরকার নির্বাচিত না হলে, জনগণও তাকে প্রত্যাখ্যান করে। আর সেই প্রত্যাখ্যানের জবাব আসে স্বৈরশাসনের মধ্যে দিয়ে। যে স্বৈরশাসন চলেছে পৃথিবীর নানা দেশে বিভিন্ন সময়ে। পুরো ষাট এবং সত্তরের দশক জুড়ে লাতিন আমেরিকার বিভিন্ন দেশে চলেছে এসব স্বৈরশাসন, বিশেষত সেনা স্বৈরশাসন। ১৯৭৬ থেকে ১৯৮৩ পর্যন্ত সাত বছর ধরে জেনারেল জর্জ রাফায়েল ভাইদেলারের নেতৃত্বে চলেছে চরম নির্যাতনমূলক সামরিক শাসন। নিখোঁজ আর হত্যা করা হয়েছে হাজার হাজার মানুষ। নিকারাগুয়ায় আনাষ্টিও সামোজার অধীনে চলেছে ৪৩ বছরের পারিবারিক শাসন। ষাটের দশকে রাফায়েল ট্রজিলেলা ডোমিনিকান রিপাবলিকে ক্ষমতা আরোহনের ছয়মাসের মধ্যেই প্রতিশোধের রক্তগঙ্গায় অবগাহন করলেন। বিস্তারিত »

নভেরা – সময়ের চেয়ে অগ্রগামী এক কিংবদন্তী

ফ্লোরা সরকার

last 7নভেরা’ নামটি উচ্চারিত হবার সঙ্গে সঙ্গে ‘তোমরা ভুলে গেছো মল্লিকা দি’র নাম’ গানটির কথা অথবা বোদলেয়ারের ‘বলো রহস্যময় মানুষ, কাকে তুমি সবচেয়ে বেশি ভালোবাসো’ কবিতাটার কথা মনে পড়ে যায়। নভেরা যেন এই গান আর কবিতার সঙ্গে একাকার হয়ে মিশে আছেন। কবে,কখন নভেরা নামটা, মল্লিকা দি’র মতো আমরা বিস্মৃত হয়েছি জানিনা। জানিনা, নভেরা, বোদলেয়ারের মতো বুঝতে পেরেছিলেন কিনা, মানুষের ভালোবাসা এক রহস্যাবৃত অনুভূতি, যার স্পর্শ পাওয়া যায় না কোনোদিন। বোদলেয়ার যেমন চলিষ্ণু মেঘদলকে ভালোবেসেছিলেন নভেরাও হয়তো তেমনি প্যারিসকেই ভালোবেসেছিলেন শেষ পর্যন্ত। সেই প্যারিসের বুকেই গত ৬ মে, ২০১৫, তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। এরই সঙ্গে শেষ হলো, বাংলাদেশের প্রথম নারী ভাস্কর নভেরা আহমেদের কর্মময় জীবনের এক বিশাল অধ্যায়। যে অধ্যায় শুরু হয়েছিলো এমন এক সময়ে, যে সময় এই দেশের নারীরা ভাস্কর্য দূরে থাক, ঠিক মতো লেখাপড়াই শুরু করতে পারেনি, অন্দর মহলই ছিলো তাদের বিশ্ব মহল। বিস্তারিত »

সত্যজিৎ রায়ের ‘শতরঞ্জ কে খিলাড়ী’ – রাজনীতির দাবা খেলা

ফ্লোরা সরকার

last 5ঈঙ্গমার বার্গম্যানের ‘দ্য সেভেন্থ সিল’ এবং সত্যজিৎ রায়ের ‘শতরঞ্জ কে খিলাড়ী’ দুটো ছবিই শুরু হয় দাবা খেলাকে কেন্দ্র করে। দুটো ছবিতেই দাবা শুধুমাত্র প্রধান চরিত্র হয়ে আর্বিভূত হয়না, মানুষের জীবনটাই যে একটা দাবা খেলা সেভাবেও জীবনকে প্রতিফলিত করে। সমস্ত জীবন মানুষকে যেন দাবা খেলা খেলে যেতে হয়। এই দাবা শুধুমাত্র একটা নিরীহ খেলা নয়, এর সাথে জড়িয়ে থাকে রাজনীতি, অর্থনীতি, জীবন আর মৃত্যু। সেভেন্থ সিলে আ্যান্টোনিও ব্লক মৃত্যুর সঙ্গে দাবা খেলে, শতরঞ্জ কে খিলাড়ীতে, মির্যা সাজ্জাদ আলি বনাম মীর রোশন আলি এবং অযোধ্যার নবাব ওয়াজিদ আলি শাহ বনাম ইংরেজ জেনারেল উট্রাম এই দ্বিমুখী দাবা খেলা চলে। দুটো ছবিতেই খেলায় হারজিত থাকে। বিস্তারিত »

উৎসব যখন পরিণত হয় যৌন সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে

ফ্লোরা সরকার

boishakh-976783একটি রাষ্ট্রে যখন কোনো স্তরেই কোনো জবাবদিহিতার ব্যবস্থা থাকে না, তখন সেখানে যে কোনো সময় যে কোনো ধরণের অন্যায় কাজ ঘটতে পারে। দীর্ঘদিন ধরে যখন একটা দেশে ক্রমাগত ভাবে অন্যায় ক্ষমা পেয়ে যায়, তখন খুব স্বাভাবিক ভাবেই ধরে নেয়া যায় ক্রমাগতভাবে ঘটবে অন্যায়। কারণ অন্যায়কারী যখন দেখতে পায় অন্যায়ের সঠিক বিচার হয়না বা হলেও অপরাধী ছাড়া পেয়ে যায়, সে অধিকতর প্রশ্রয় পায় অন্যায় করার জন্যে। কেউ একদিনে অপরাধী হয়ে উঠে না, এর পেছনে থাকে রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক, অর্থনৈতিক এবং নৈতিক মূল্যবোধের অবক্ষয়ের ইতিহাস। বিস্তারিত »

চৈত্র সংক্রান্তি পালন ও প্রকৃতির হিশাব নিকাশ

ফরিদা আখতার

last 1চৈত্র মাস কেটে গেল গরম ছাড়াই। শীতের পর ফাল্গুন পার হয়ে চৈত্র মাস, সে চৈত্র মাসে আবহাওয়া গরম হয়ে ওঠার সুযোগ থাকে এবং সেটা বেশ গরম লাগার কথা। কিন্তু এবারের চৈত্র ছিল একটু ব্যতিক্রম। প্রায় বৃষ্টি ও বৈশাখ আসার আগেই বৈশাখী ঝড় আমরা দেখেছি। একে জলবায়ু পরিবর্তন বলা হয়তো যেতে পারে। যদি তাই হয় তাহলে আমাদের প্রকৃতিতে মৌসুম অনুযায়ী তাপমাত্রা ও আদ্রতা নিয়ে যেসব ফসল, গাছপালা জন্মাবার কথা তাও পরিবর্তন হবে। চৈত্র মাস শেষ হচ্ছে, ৩০ চৈত্র। এই দিনের মধ্য দিয়ে ১৪২১ বাংলা বছরের সমাপ্তি ঘটবে। কিন্তু চৈত্র সংক্রান্তি পালনের বিষয়টি বছর শেষ ঘোষণার জন্যে নয়, দিনটি পালন হবে মানুষের শরীর ও প্রকৃতির একটি যোগ সুত্র ঘটাবার জন্যে। প্রকৃতি থেকে কুড়িয়ে এনে শাক এবং এই মৌসুমের সব্জি খেয়ে চৈত্র সংক্রান্তি পালন করতে হবে। বিস্তারিত »