Home » অর্থনীতি (page 12)

অর্থনীতি

সমুদ্রে চীনের একচ্ছত্র আধিপত্য প্রতিষ্ঠার চেষ্টা

মোহাম্মদ হাসান শরীফ, ফরেন পলিসি অবলম্বনে

Last 3চীনা প্রেসিডেন্ট সি চিন পিঙের ২৪ সেপ্টেম্বর ওয়াশিংটন সফরে গেলেন। এর মাত্র অল্প কয়েক দিন আগে দেশটির একটি নৌবহর যুক্তরাষ্ট্রের পানিসীমায় আত্মপ্রকাশ করে। নিশ্চিতভাবেই বলা যায়, চীনা কমিউনিস্ট পার্টির কর্মকর্তারা রণতরীগুলোর ক্যাপ্টেনদের সংক্ষিপ্ত ও আইনসম্মত পথেই চলার নির্দেশ দিয়েছিলেন।

পাঁচটি রণতরীর বেরিং প্রণালীতে ভেসে বেড়ানোটা যুক্তরাষ্ট্র সানন্দেই গ্রহণ করেছে। মার্কিন নৌবাহিনীর এক মুখপাত্র এমনটাও বলেছেন, ‘চীন হলো বৈশ্বিক নৌবাহিনী। বিস্তারিত »

শিক্ষা ও শ্রেণী সম্পর্ক (শেষ পর্ব)

করপোরেট সেক্টরের ট্রিলিয়ন ডলারের বাণিজ্য

হায়দার আকবর খান রনো

গত শতাব্দীর নব্বইয়ের দশক থেকে আন্তর্জাতিক পুঁজিবাদসাম্রাজ্যবাদ একটা নতুন স্তরে প্রবেশ করেছে যাকে সাধারণত বিশ্বায়ন বলে অভিহিত করা হয়। এই যুগের আন্তর্জাতিক একচেটিয়া পুঁজির অন্যতম দাবী হল শিক্ষা, স্বাস্থ্য, পানি সরবরাহ ইত্যাদি সেবা খাতকেও ব্যক্তিখাতে হস্তান্তরিত করতে হবে। শিক্ষাচিকিৎসাও পণ্য, বাজারে কেনাবেচা হবে, দামও নির্ধারণ করবে বাজার। এইসব আর জনগণের অধিকার হিসাবে স্বীকৃত হবে না।

এইভাবে বিশ্বব্যাপী এবং আমাদের দেশেও শিক্ষার প্রাইভেটাইজেশন ও বাণিজ্যিকীকরণ শুরু হয়েছে তখন থেকেই। ক্রমাগত তা প্রকট ও বিভৎস রূপ নিচ্ছে। বিস্তারিত »

তেলের অর্থ এবং আন্তর্জাতিক অস্ত্র ব্যবসার নেপথ্যে (শেষ পর্ব)

সৌদি দুর্নীতির বিরুদ্ধে ব্রিটেন তদন্ত বন্ধ করায় যুক্তরাষ্ট্রের তীব্র ক্ষোভ

Last-5অস্ত্র ব্যবসার সাথে তেল সম্পদের অর্থের একটি গভীর সখ্যতা রয়েছে। একটি অপরটিকে টিকিয়ে রাখে। আর পরস্পরের ঘনিষ্ঠ দুই ব্যবসার কুশীলবরা। এই ব্যবসার নেপথ্যে রয়েছে ঘুষ, অর্থ কেলেঙ্কারিসহ নানা ভয়ঙ্কর সব ঘটনাবলী। এরই একটি খচিত্র প্রকাশ করা হচ্ছে ধারাবাহিকভাবে। প্রভাবশালী দ্য গার্ডিয়ানএর প্রখ্যাত দুই সাংবাদিক ডেভিড লে এবং রাব ইভানসএর প্রতিবেদন প্রকাশের পরে এ নিয়ে বিস্তর আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছিল। এ সংখ্যায় ওই প্রতিবেদনের বাংলা অনুবাদের (শেষ পর্ব) প্রকাশিত হলো। অনুবাদ : জগলুল ফারুক বিস্তারিত »

বন্ধ হচ্ছে শ্রমবাজার, কমছে জনশক্তি রফতানি :: নেপালও এগিয়ে

আমাদের বুধবার প্রতিবেদন

Dis-5বাংলাদেশ জনশক্তি রফতানি ও তাদের পাঠানো রেমিট্যান্স বাংলাদেশের বৈদেশিক অর্থ রিজার্ভের প্রধান উৎস। সম্প্রতি কমে গেছে দেশের আয়ের প্রধান খাত জনশক্তি রফতানি। আর বাংলাদেশ থেকে বিভিন্ন দেশে যাওয়ার অভিবাসন ব্যয় অতিরিক্ত মাত্রায় বৃদ্ধি পাওয়াও অনেকাংশে এর একটি কারণ। এই দুঃসময়ে এর সাথে যোগ হয়েছে বাংলাদেশের কূটনৈতিক তৎপরতায় ব্যর্থতা। ফলে আমাদের অনেক পেছনে ফেলে এগিয়ে গেছে আমাদের প্রতিবেশী দেশ নেপালও। বিস্তারিত »

আরেকদফা ধাক্কার মুখোমুখি অর্থনীতি

এম. জাকির হোসেন খান

Dis-4বিশ্ব অর্থনৈতিক ফোরামের ২০১৫ এর সাম্প্রতিক প্রতিবেদনে জানানো হয়, ‘সীমাবদ্ধতা থাকা সত্ত্বেও অর্থনৈতিক প্রতিযোগিতা সক্ষমতায় দুই ধাপ এগিয়েছে বাংলাদেশ। এর একটি কারণ হতে পারে, প্রতিযোগী দেশগুলোর আরো বেশি খারাপ পারফরম্যান্সের কারণে বাংলাদেশ এগিয়ে এসেছে’। কারণ এতই প্রতিবেদনে জানানো হয়, প্রতিযোগিতা সক্ষমতার ক্ষেত্রে বাংলাদেশের মোট ১৬টি সমস্যার মধ্যে প্রধান সমস্যা (৯৬%) দুর্নীতি তথা রাজনীতিবিদদের নৈতিক অবস্থানকে দুর্বল বলে উল্লেখ করেছে। একইসাথে ক্ষমতাসীনদের বিচার বিভাগ ও সংবাদপত্রের স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ করায় বিনিয়োগও বাড়ছে না বলে জানানো হয়। উল্লেখ্য, এর আগে বিভিন্ন দেশে বৈদেশিক বিনিয়োগের (এফডিআই) হালনাগাদ তথ্য নিয়ে জাতিসংঘের সহযোগী সংস্থা ইউনাইটেড নেশন্স কনফারেন্স অন ট্রেড অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট (আঙ্কটাড) প্রকাশিত ‘ওয়ার্ল্ড ইনভেস্টমেন্ট রিপোর্ট ২০১৫’ শীর্ষক প্রতিবেদনে ২০১৪ সালে বাংলাদেশে নিট বৈদেশিক বিনিয়োগ বা এফডিআই দেখানো হয়েছে ১৫৩ কোটি ডলার, যা আগের বছরের তুলনায় ৭ কোটি ডলার বা প্রায় ৫ শতাংশ কম। বিস্তারিত »

কোনো আলোচনা ছাড়াই বাধ দিয়ে পানি সরিয়ে নিচ্ছে ভারত

হায়দার আকবর খান রনো

Dis-3গত সপ্তাহে ভারতের আন্তঃনদী সংযোগ প্রকল্পের কারণে বাংলাদেশের কি ভয়ংকর সর্বনাশ হতে পারে, তার একটি বিবরণ তুলে ধরা হয়েছিল। এখানে খুবই সংক্ষেপে ভয়ানক ক্ষতির দিকগুলো পুনরায় উল্লেখ করা হচ্ছে। ভারতের আন্তঃনদী সংযোগ যদি সত্যি বাস্তবায়িত হয় তাহলে বাংলাদেশের উপর তার যে ক্ষতিকর প্রভাব পড়বে সেগুলো নিম্নরূপ। তবে কায়মনবাক্যে কামনা করি তা যেন বাস্তবায়িত না হয়।

১। ভারত উজানে গঙ্গা, ব্রহ্মপুত্র, তিস্তা, ধরলা, দুধ কুমার, করতোয়া ও মহানন্দা থেকে পানি প্রত্যাহার করলে এই সকল নদী এবং শাখা নদী অর্থাৎ বাংলাদেশের অধিকাংশ নদী শুকিয়ে যাবে। বিস্তারিত »

মধ্য-আয়ের লক্ষ্য :: যেতে হবে অনেক দূর

ফাহমিদা খাতুন

Last 1বিশ্বব্যাংক সম্প্রতি বাংলাদেশকে স্বল্প আয় থেকে নিম্নমধ্য আয়ের শ্রেণীতে উন্নীত করার যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে তা ছিল সময়ের ব্যাপার মাত্র। বাংলাদেশ ২০০০এর দশকে দৃঢ় প্রবৃদ্ধি অর্জন করেছে, মাথাপিছু আয় অনেক বাড়িয়েছে। ১৯৭০এর দশকের মাত্র ২.৮ শতাংশ থেকে বেড়ে ২০১০এর দশকে হয় ৬ শতাংশ, মাথাপিছু আয় ১৯৭৩ সালে যেখানে ছিল মাত্র ৯০ ডলার, ২০১৫ সালে তা দাঁড়িয়েছে ১,৩১৪ ডলার।

একটি আধুনিক অর্থনীতির প্রতিনিধি হিসেবে বাংলাদেশ আত্মপ্রকাশ করেছে। দেশটি ঐতিহ্যগত কৃষির ওপর নির্ভরশীলতা থেকে শিল্প ও সেবা খাতে কাঠামোগত রূপান্তর ঘটিয়েছে। বিস্তারিত »