Home » অর্থনীতি (page 30)

অর্থনীতি

ভাগ্যবান ব্যবসায়ীদের জন্য ঋণের বিশেষ সুবিধা :: ক্ষতিগ্রস্ত ব্যাংক খাত

আমাদের বুধবার প্রতিবেদন

dis 4২০১৩১৪ সালে ব্যবসাবাণিজ্যের অবস্থা ভালো ছিল না। এর প্রভাব পড়ে ব্যাংক খাতে। এমন পরিস্থিতিতে ২০১৪ সালের শুরুর দিকে ব্যাংক ও ব্যবসায়ীদের ঘুরে দাঁড়াতে খেলাপি ঋণ পুনঃতফসিলের বিশেষ সুযোগ দেয় কেন্দ্রীয় ব্যাংক। এ ব্যবস্থায় পুনঃতফসিল হয়েছে ২৩ হাজার কোটি টাকা। তার পরও খেলাপি ঋণ কমেনি। সর্বশেষ হিসাবে তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে প্রায় ৬০ হাজার কোটি টাকা। এর মূল কারণ, বিতরণ হওয়া ঋণে ব্যাপক অনিয়ম। গত বছরজুড়েই ব্যাংক খাতের আলোচিত বিষয় ছিল অনিয়ম আর খেলাপি ঋণ পুনঃতফসিল। বিদায়ী বছর বিপুল পরিমাণের খেলাপি ঋণ পুনঃতফসিলের পরও গত সেপ্টেম্বর পর্যন্ত নয় মাসে ১৬ হাজার ৭০৮ কোটি টাকা বেড়ে খেলাপি ঋণের পরিমাণ দাঁড়ায় ৫৭ হাজার ২৯১ কোটি টাকা, যা বিতরণ হওয়া মোট ঋণের ১১ দশমিক ৬০ শতাংশ। বিস্তারিত »

সাধারণ মানুষকেই খেসারত দিতে হয়

ফারুক আহমেদ

dis 3জনগণের জীবনে ঘটে যাওয়া করুণ এবং নির্মম সব ঘটনাবলী নিয়ে রাজনৈতিক ব্যবসা হয়ে দাঁড়িয়েছে এখনকার সবচেয়ে বড় সত্য। দায়ীত্ব নেওয়ার কেউ নেই। জনজীবনের সর্বপ্রকার দুর্ভোগ হয়ে দাঁড়িয়েছে ক্ষমতাসীনদের ক্ষমতায় টিকে থাকার সবচেয়ে বড় পুঁজি। দীর্ঘদিন ধরে বাংলাদেশের মানুষের অভিজ্ঞতা হলো, জনজীবনের দুর্ভোগ দুর করার কোন ব্যবস্থা এবং উদ্যোগ শাসক দলগুলোর নেই। বরং দুর্ভোগ ঘটানোর পারস্পরিক অভিযোগই হয়ে দাঁড়িয়েছে যেন তাদের একমাত্র রাজনৈতিক কর্মসূচী,শাসক দলগুলোর কাছে রাজনৈতিক বিজয়। এই বিজয় বিজয় খেলায় জনজীবনে যত দুর্ভোগই ঘটুক, যত নির্মমতাই নেমে আসুক তাতে এদের কিছুই যায় আসে না। বিস্তারিত »

জ্বালানির দাম কমেছে ॥ কিন্তু বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধির বর্গী উৎপাত

বি.ডি. রহমতউল্লাহ্

dis 5বিদ্যুৎ ও জ্বালানী খাতকে ক্ষমতাসীনদের নিবিড় সহযোগিতায় সংঘবদ্ধ চক্রের একটি শক্তিশালী সিন্ডিকেট এ খাতটিকে পুরো পকেটে ঢুকিয়ে হাতপালেজ ইচ্ছেমতো কেটেকুটে বিনাশ করে দিয়েছে এবং দিচ্ছে। রেন্টাল এবং তথাকথিত কুইক রেন্টাল বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্র থেকে উৎপাদিত বিদ্যুতের যে ‘অনৈতিক’ দর নির্ধারণ করা হয়েছে শুধু এই একটি কারনেই বাংলাদেশের অর্থনীতি যে ভয়াবহ অর্থনৈতিক সঙ্কটে পড়েছে তা স্পষ্ট। জানা মতে মোট ২৩০০ মেগাওয়াট ক্ষমতার রেন্টাল এবং কুইক রেন্টাল বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্র বসানো হলেও সিষ্টেমে বর্তমানে ১ হাজার মেগাওয়াট চালু আছে। যার অধিকাংশই তরল জ্বালানী ভিত্তিক। রেন্টালকুইক রেন্টালের ট্যারিফ কত হওয়া দরকার তা নির্ধারণ করার পূর্বে পাঠকদের সুবিধার্থে কতগুলো তথ্যের দিকে দৃষ্টি দিতে অনুরোধ করছি। বিস্তারিত »

সঙ্কটে জীবন-জীবিকা অর্থনীতি :: এভাবে আর কতোদিন

আমাদের বুধবার প্রতিবেদন

dis 4দেশের অস্থিতিশীল পরিস্থিতির জন্য সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে নিম্ন আয়ের সাধারণ মানুষ। এদের জীবনে নেমে এসেছে অশনিসংকেত। সমাজে যাদের অভাব অনটন জীবনসঙ্গী, তাদের কর্মহীন জীবন যাপনে একবেলাও খাবার জোগাতে গিয়ে হিমশিম খাচ্ছে। এ ধরনের পরিবারের সংখ্যাই বেশি। ফলে গ্রামীণ অর্থনৈতিক কর্মকান্ড ভেঙ্গে পড়ার উপক্রম হয়েছে। রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতা পরিপ্রেক্ষিতে বিরোধী দলের ডাকা হরতালঅবরোধ অব্যাহত থাকায় শহরশহরতলীতে ভাসমান হকার ছাড়াও লক্ষ লক্ষ ভাসমান ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীসহ ফসল উৎপাদনকারীদের জীবন যাপন দুর্বিষহ হয়ে উঠছে। হাজার হাজার বেকার কর্মজীবী মানুষের অভাব অনটন নিত্যসঙ্গী হয়ে পড়ছে। দিনমজুর মানুষ কর্মের অভাবে ভিক্ষা করতেও দ্বিধাবোধ করছে না। ফুটপাতে কাঁধে বা হাতল গাড়ীতে বহন করে যেসব হকার কোন প্রকারে জীবিকা নির্বাহ করে, তাদের জীবনে নেমে এসেছে ভয়াবহ দুর্গতি। বিস্তারিত »

বিদেশীদের উদ্বেগ :: এখন এবং তখন

এম. জাকির হোসেন খান

last 2জাতিসংঘ মানবাধিকার কমিশন বাংলাদেশব্যাপী ক্রমবর্ধমান রাজনৈতিক সহিংসতার ফলে উদ্বেগ প্রকাশ করে আশংকা প্রকাশ করছে যে, ২০১৪ এর নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ডেসট্রাকটিভ ব্রিঙ্কম্যানসশিপবা বিপজ্জনক নীতি অনুসরণ করার ফলে রাষ্ট্রটি খাদের কিনারায় পৌঁছানোর ন্যায় অবস্থা আবার ফিরে আসতে পারে। বাংলাদেশের প্রধান দুই দলের মধ্যকার মতভেদ শান্তিপূর্ণভাবে সমাধান করতে ব্যর্থ হওয়ায় রাজনৈতিক সহিংসতা ক্রমেই ছড়িয়ে পড়া খুবই উদ্বেগজনক। আমরা খুবই উদ্বিগ্ন যে, ব্যাপক সহিংসতার ফলে ইতিমধ্যে অনেক মৃত্যু, আহত হওয়া এবং বিপর্যয় ঘটেছে এবং পরিস্থিতি ক্রমেই জটিল আকার ধারণ করেছে। আমরা সকল রাজনৈতিক দলের কাছে আবেদন করছি তারা যেন সহনশীল আচরন করে এবং দ্রুত এ গোলযোগের পরিসম্পাপ্তি ঘটে। বিস্তারিত »

আগ্রাসনের শিকার সুন্দরবন

ঘষিয়াখালী রুট চালু করতে হবে

. ইনামুল হক

last 3প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১৪এর ১৫ ডিসেম্বর সুন্দরবনকে রক্ষা করার জন্য ঘষিয়াখালী নৌরুটের দুপাশে গড়ে ওঠা চিংড়ি ঘেরগুলিকে তুলে দিয়ে ড্রেজিং করার নির্দেশ দিয়েছেন। তাঁর এই আদেশ ৯ ডিসেম্বর ঘটে যাওয়া দুর্ঘটনার পর সবার কাছেই অনেক প্রতীক্ষীত ছিলো। উল্লেখ্য যে, তেলবাহী জাহাজ ‘সাউদার্ণ স্টার ৭’ অন্য একটি খালি জাহাজ ‘টোটাল’ এর ধাক্কায় ফুটো হয়ে শ্যালা নদীতে ডুবে গেলে ৩৫৭,৬৬৪ লিটার ফার্ণেস অয়েল সুন্দরবনে ছড়িয়ে পড়ে এক মহা দুর্যোগ সৃষ্টি করে। এই সুন্দরবন উত্তর থেকে আসা গঙ্গা ও তার শাখা প্রশাখার মিঠা পানি ও দক্ষিণ থেকে আসা সমুদ্রের লোনা পানির মিলনস্থল যা’ Pleistoceneযুগ (২০ লক্ষ থেকে ১ লক্ষ বছর আগে) ও তৎপরবর্তী Holoceneযুগে (১ লক্ষ বছর থেকে অদ্যাবধি) উজান থেকে আসা পলির পতন এবং তার উপর মোহনার গাছপালার পরিবৃদ্ধির মাধ্যমে সৃষ্টি হয়েছে। বিস্তারিত »

শ্যালা নদী দিয়ে জাহাজ চলাচল :: আবারও ঝুঁকির মধ্যে সুন্দরবন

কল্লোল মোস্তফা

last 1সরকার সুন্দরবনের শ্যালা নদী দিয়ে আবারও জাহাজ চলাচলের অনুমতি দিয়েছে। ৭ জানুয়ারি থেকে শ্যালা নদী দিয়ে জাহাজ চলাচলের অনুমোদন দেয়ার সময় সরকার বলেছে আগামী জুন মাসের মধ্যে নাকি ঘষিয়াখালী চ্যানেলের ড্রেজিং কাজ সম্পন্ন করা হবে।গত ৯ ডিসেম্বর তেল দুর্ঘটনা ঘটার পর পর সরকার শ্যালা নদী পথ বন্ধ করে সাময়িক বিকল্প হিসেবে পশুর চ্যানেল দিয়ে জাহাজ চলার কথা বলেছিল, কিন্তু যাত্রা পথ এক দেড়শ কিলোমিটার বেড়ে যাওয়া এবং কিছুটা সাগর পথ পাড়ি দিতে হওয়ার কারণে নৌযান মালিকরা ঐ বিকল্প পথে জাহাজ চালাতে অস্বীকার করে এবং নৌমন্ত্রীর নিয়ন্ত্রাণাধীন শ্রমিক সংগঠন অনির্দিষ্ট কালের নৌধর্মঘটের হুমকি প্রদান করে।এরকম একটা প্রেক্ষিতেই সরকার আবার শ্যালা নদী দিয়ে নৌযান চলচলের অনুমতি দিল। বিস্তারিত »