Home » আন্তর্জাতিক (page 18)

আন্তর্জাতিক

নেপালে আবার ভারতের অবরোধ!

মোহাম্মদ হাসান শরীফ

Nepal 1অবরোধের মুখে পড়েছে স্থলবেষ্টিত দেশ নেপাল। জ্বালানিসহ সব ধরনের নিত্যপণ্যের জন্য ভারতের ওপর নির্ভরশীল নেপাল। সেইসব পণ্য ভারত থেকে নেপালে ঢুকছে না বা ঢুকতে পারছে না। অবশ্য ভারত বলছে, কোনো ধরনের অবরোধ আরোপ করা হয়নি। নিরাপত্তার কারণে কোনো গাড়ি যেতে পারছে না। কিন্তু নেপালিরা ভাবছে ভিন্ন কারণ। নেপথ্যে রয়েছে মদেশী ইস্যু।

কী এই ইস্যু? নেপালের একটি জনগোষ্ঠীর নাম মদেশ। ভারতীয়বংশোদ্ভূত এই জাতিগোষ্ঠীর উপর ভারতীয় প্রভাব যথেষ্ট। অনেক সঙ্কটের সময় নির্দিষ্ট রাজনৈতিক বা কূটনৈতিক প্রভাব খাটানোর প্রশ্নে সুকৌশলে ভারতনেপাল সীমান্তবর্তী এই জনগোষ্ঠীকে কাজেও লাগিয়েছে। বিস্তারিত »

দক্ষিণ এশিয়ায় অস্ত্র ক্রয় :: বৈরিতা ও আবেগময় জাতীয়তাবাদের ফসল

প্রতিটি শিশুর পড়াশোনার ব্যয়ের তুলনায় প্রতিটি সেনার পেছনে খরচ ৬০ গুণ বেশি

সাদ হাফিজ

অনুবাদ : মোহাম্মদ হাসান শরীফ

Last-2অস্ত্র সংগ্রহের প্রতি অদম্য নেশা কখনো কাটবে, এমন কোনো আশার রেখা কোথাও দেখা যাচ্ছে না। বিশ্বজুড়ে অস্ত্রের ব্যবসা বরং বিপুলভাবে বাড়ছেই। যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া ও চীনের মতো প্রধান প্রধান অস্ত্র রফতানিকারকের কল্যাণে ২০১৪ সালে বিশ্বজুড়ে অস্ত্র কেনাবেচা ২৫ বিলিয়ন ডলার ছাড়িয়ে গেছে। মূল্যবান অস্ত্র সামগ্রীর মধ্যে রয়েছে সাবমেরিন, জঙ্গিবিমান, ক্ষেপণাস্ত্র, সাঁজোয়া যান, ড্রোন ও হেলিকপ্টার। স্টকহোম ইন্টারন্যাশনাল পিস রিসার্চ ইনস্টিটিউটের (সিপরি) হিসাব অনুযায়ী, ২০১৪ সালে বৈশ্বিক সামরিক ব্যয় ছিল ১.৭৭৬ ট্রিলিয়ন ডলার। এর মধ্যে যুক্তরাষ্ট্র ছিল নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বিদের চেয়ে অনেক এগিয়ে থেকে শীর্ষে। তাদের ব্যয় হয়েছে ৫৮১ বিলিয়ন ডলার। বিস্তারিত »

চীন :: পরাশক্তির বিবর্তন (পর্ব – ২৮)

সাংস্কৃতিক বিপ্লবের সূচনা

আনু মুহাম্মদ

Last-4১৯৬৬ সালেই শুরু হলো বিপ্লবউত্তর চীনের ইতিহাসের আরেকটি উল্লেখযোগ্য পর্ব। এটি সাংস্কৃতিক বিপ্লবনামেই বিশ্বব্যাপী পরিচিত। চীনে এর আনুষ্ঠানিক নাম দেয়া হয়েছিলো মহান সর্বহারা সাংস্কৃতিক বিপ্লব। এই বিপ্লবের মধ্য দিয়ে মাও সেতুং পার্টিতে আবারো নিজের মতাদর্শিক অবস্থান সংহত করেন। পার্টির কেন্দ্রীয় অনেক নেতা, এমনকি শীর্ষে অবস্থানরত লিউশাউচিসহ পার্টির বিভিন্ন পর্যায়ের অনেক নেতা, বুদ্ধিজীবী, সরকারি কমকর্তার অবস্থান বিপ্লবের জন্য ক্ষতিকর, বিপজ্জনক বলে অভিহিত হয় এবং তাঁরা তীব্র সমালোচনা ও আক্রমণের শিকার হন। ১৯৬৯ সালে মাও আনুষ্ঠানিকভাবে এর সমাপ্তি ঘোষণা করলেও এর রেশ ১৯৭৬ সালে তাঁর মৃত্যু পর্যন্ত অব্যাহত ছিলো। বিস্তারিত »

বিপ্লব অধিকার আর ন্যায্যতা সম্পর্কে অরুন্ধতী রায় (দ্বিতীয় পর্ব)

আমি কখনো আমার জীবনে ওই পুরুষ চরিত্রটি দেখিনি, যে আমাকে দেখে রাখবে, সুরক্ষা দেবে

Last-5অরুন্ধতী রায়। সাম্প্রতিক সময়ের পুরস্কারজয়ী অন্যতম একটি ফিকশনের লেখক। তার দ্য গড অব স্মল থিংযিনিই পড়েছেন, তিনিই পরবর্তীকালে তার লেখা রাজনৈতিক প্রবন্ধগুলোর উৎস খুঁজে পাবেন। তার লেখাগুলো একটি অন্যটির পরিপূরক, আর সেগুলো তাকে কেবল ভারতে নয়, বিশ্বজুড়ে শক্তিশালী কণ্ঠস্বরে পরিণত করেছে। অরুন্ধতী যে বিশ্বকে ধারণ করেছেন, আক্ষরিক অর্থেই তা বেশির ভাগ লেখকের চেয়ে বড়। কিভাবে তিনি অরুন্ধতী রায় হলেন, তাকে কোন বিষয়টা উদ্দীপ্ত করে, কিভাবে তিনি লেখালেখি শুরু করলেন, তা নিয়ে এক ঘণ্টা ধরে কথা বলেছেন সাবা নকভির সাথে। আউটলুক ম্যাগাজিনে প্রকাশিত ওই সাক্ষাতকারের কিছু অংশ তুলে ধরা হলো। অনুবাদ করেছেন মোহাম্মদ হাসান শরীফ। বিস্তারিত »

বিপ্লব অধিকার আর ন্যায্যতা সম্পর্কে অরুন্ধতী রায় (প্রথম পর্ব)

বিশ্বকে কেবল ‘অধিকার’ আর ‘ইস্যু’র চশমা দিয়ে দেখি না

Last 2অরুন্ধতী রায়। সাম্প্রতিক সময়ের পুরস্কারজয়ী অন্যতম একটি ফিকশনের লেখক। তার ‘দি গড অব স্মল থিংস’ যিনিই পড়েছেন, তিনিই পরবর্তীকালে তার লেখা রাজনৈতিক প্রবন্ধগুলোর উৎস খুঁজে পাবেন। তার লেখাগুলো একটি অন্যটির পরিপূরক, আর সেগুলো তাকে কেবল ভারতে নয়, বিশ্বজুড়ে শক্তিশালী কণ্ঠস্বরে পরিণত করেছে। তিনি অন্যদের কর্মসূচি বাস্তবায়নেও এগিয়ে আসেন। দি গড অব স্মল থিংয়ের পুরস্কার হিসেবে পাওয়া ১৫ লাখ রুপি তিনি ‘নর্মদা বাঁচাও আন্দোলনে’ দান করেছেন। ‘সামাজিক, অর্থনৈতিক ও পরিবেশগত ন্যায়বিচারের প্রতি তার প্রতিশ্রুতি উচ্চকিত করার জন্য তার পরিপূর্ণ ও শক্তিশালী লেখালেখির’ জন্য ২০০২ সালে ল্যানন ফাউন্ডেশন তাকে সাড়ে তিন লাখ ডলার (১ কোটি ৬৭ লাখ রুপি) প্রদান করে। তিনি ৫০টি গণআন্দোলন, প্রকাশনা সংস্থা, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, থিয়েটার গ্রুপ ও ব্যক্তির সাথে সংহতি প্রকাশ করে পুরস্কারের ওই অর্থ দান করে দিয়েছেন। আর তার প্রকাশিত গ্রন্থগুলোর র‌্যায়ালটি আসে ভালোই। তিনি এই অর্থ আন্দোলন ও ব্যক্তিবর্গের সাথে ভাগাভাগি করে নেওয়াও অব্যাহত রেখেছেন। এ কারণে অরুন্ধতী যে বিশ্বকে ধারণ করেছেন, আক্ষরিক অর্থেই তা বেশির ভাগ লেখকের চেয়ে বড়। কিভাবে তিনি অরুন্ধতী রায় হলেন, তাকে কোন বিষয়টা উদ্দীপ্ত করে, কিভাবে তিনি লেখালেখি শুরু করলেন, তা নিয়ে এক ঘণ্টা ধরে কথা বলেছেন সাবা নকভির সাথে। আউটলুক ম্যাগাজিনে প্রকাশিত ওই সাক্ষাতকারের কিছু অংশ তুলে ধরা হলো। অনুবাদ করেছেন মোহাম্মদ হাসান শরীফ। বিস্তারিত »

চীন :: পরাশক্তির বিবর্তন (পর্ব – ২৭)

মস্কোপন্থী ও পিকিংপন্থী রাজনীতিতে বিভক্ত বিশ্ব

আনু মুহাম্মদ

Last 3সোভিয়েত পার্টির সাথে বিতর্কের এক পর্যায়ে কী কী ধরন থাকলে কোনো ‘বিপ্লবী পার্টি’ আর বিপ্লবী পার্টি থাকতে পারে না তার বিষয়ে চীনা পার্টির প্রকাশনায় বিশদ বলা হয়েছিলো। সেগুলো যদি তালিকা হিসাবে উপস্থিত করি তাহলে তা হবে এরকম, () সর্বহারা বিপ্লবী পার্টি না হয়ে কোনো পার্টি যদি বুর্জোয়া সংস্কারবাদী পার্টি হয়, () মার্কসবাদী লেনিনবাদী পার্টি না হয়ে কোনো পার্টি যদি সংশোধনবাদী পার্টি হয়, () সর্বহারা শ্রেণীর অগ্রগামী বাহিনী না হয়ে কোনো পার্টি যদি বুর্জোয়া শ্রেণীর লেজুড়ে পরিণত হয়, () সর্বহারা শ্রেণী ও শ্রমজীবী মানুষের স্বার্থের পরিবর্তে কোনো পার্টি যদি শ্রমিক অভিজাতদের স্বার্থের প্রতিনিধিত্ব করে, () আন্তর্জাকিতাবাদী না হয়ে যদি কোনো পার্টি জাতীয়তাবাদী হয়, () কোনো পার্টি যদি নিজের চিন্তা নিজে না করতে পারে, বিস্তারিত »

বিশ্বশান্তির জন্য সবচেয়ে মারাত্মক হুমকি কে? (দ্বিতীয় পর্ব)

সন্ত্রাসবাদে বিশ্বের প্রধান সমর্থক

নোয়াম চমস্কি

অনুবাদ : আসিফ হাসান

Last 4পরবর্তী অবধারিত প্রশ্নের দিকে মুখ ফেরানো যাক, ইরানি হুমকির সত্যতা কতটুকু? উদারহণ হিসেবে বলা যায়, কেন ইসরাইল ও সৌদি আরব ওই দেশটির ভয়ে কাঁপছে? আর যাই হোক না কেন, এই হুমকি সামরিক মনে করা কঠিন। অনেক আগে মার্কিন গোয়েন্দারা কংগ্রেসকে জানিয়েছিল, এই অঞ্চলের মানদণ্ডের আলোকে ইরানের সামরিক ব্যয় খুবই কম এবং তাদের কৌশল হলো আত্মরক্ষামূলক, অর্থাৎ আগ্রাসন প্রতিরোধ করা। মার্কিন গোয়েন্দা সম্প্রদায় আরো জানিয়েছিল, ইরান সত্যিই অস্ত্র কর্মসূচি পরিচালনা করছে, এমন কোনো প্রমাণ তাদের কাছে নেই এবং ‘ইরানের পরমাণু কর্মসূচি এবং দেশটির পরমাণু অস্ত্র বানানোর সম্ভাবনায় সেটা অব্যাহত রাখার আগ্রহ আসলে কেন্দ্রীয় নিবৃত্তিমূলক কৌশলের অংশবিশেষ’। বিস্তারিত »