Home » রাজনীতি (page 13)

রাজনীতি

লাভবান শিল্পোন্নত দেশ ও কর্পোরেট ॥ উপেক্ষিত অনুন্নতরা

এম. জাকির হোসেন খান

Dis-4সদ্য সমাপ্ত কপ২১ প্যারিস সম্মেলনে গৃহীত জলবায়ু পরিবর্তন সংক্রান্ত বৈশ্বিক চুক্তিকে মূল্যায়ন করেছেন জলবায়ু পরিবর্তন সংক্রান্ত বিশ্বের প্রধান বিজ্ঞানী ও নাসার প্রাক্তন গবেষক জেমস হ্যানসেনঠিক এভাবেই– ‘এটা প্রৃকৃতপক্ষে প্রতারণা, একটা ভূয়া মন্তব্য যারা করো আমরা বৈশ্বিক তাপমাত্রা ২ ডিগ্রী সেন্টিগ্রেড কমানোর টার্গেট করেছি এবং প্রতি ৫ বছরে চেষ্টা করবো সামান্য পরিবর্তনের চেষ্টা করবো। এটা একটি অর্থহীন মন্তব্য. কোনো ধরনের বাস্তব পদক্ষেপ নেই, শুধুমাত্র প্রতিশ্রুতি। যতক্ষণ পর্যন্ত জীবাশ্ম জ্বালানি সবচেয়ে সস্তা জ্বালানি হিসেবে বাজারে থাকবে ততক্ষণ পর্যন্ত তার ব্যবহার হবেই’। জেমস হ্যানসেন জলবায়ু পরিবর্তন সংক্রান্ত বৈশ্বিক সচেতনতা সৃষ্টিকারীদের ‘পিতা’ বলেও পরিচিত। বিস্তারিত »

জলবায়ু রাজনীতি :: এখন যা ঘটছে (প্রথম পর্ব)

প্যারিস সম্মেলনে তেমন কোনো সাফল্য নেই

হায়দার আকবর খান রনো

Dis-3প্যারিসে ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলার কয়েকদিন পরই আবার জমজমাট হয়ে উঠেছিল জাতিসংঘ আয়োজিত আন্তর্জাতিক জলবায়ু সম্মেলনকে কেন্দ্র করে। ১৯৫টি দেশের প্রতিনিধিরা দুই সপ্তাহ ধরে অনেক তর্কবিতর্ক, দরকষাকষি ও কসরতের পর সর্বসম্মত সিদ্ধান্তে আসতে পেরেছিলেন। এ জন্য ৩০ নভেম্বর থেকে শুরু হওয়া সম্মেলনের সময় আর দুই দিন বাড়ানো হয়েছিল। অবশেষে প্যারিসের সময় অনুসারে ১২ ডিসেম্বর রাতে সর্বসম্মতিক্রমে একটা চুক্তিতে পৌছানো সম্ভব হয়েছিল। চুক্তির খসড়াটা নিয়ে প্রত্যেক দেশের প্রতিনিধি দল নিজ নিজ দেশে ফিরে যাবে। নিজ নিজ দেশের কর্তৃপক্ষের দ্বারা অনুমোদিত হতে হবে। তারপর ২০১৭ সালের এপ্রিলের মধ্যে জাতিসংঘ কর্তৃক আহূত এই রকম আরেকটি আন্তর্জাতিক সম্মেলনে খসড়া চুক্তিটি চূড়ান্তভাবে অনুমোদিত হবে। বিস্তারিত »

২০১৫ :: রাষ্ট্র এখন শক্তিমানের মিত্র

শাহাদত হোসেন বাচ্চু

Coverদুই হাজার পনের খ্রিষ্টাব্দ। বছরটি ছিল দেবদূত শিশুদের জন্য সবচেয়ে অনিরাপদ। কি দেশে অথবা বিদেশে। ২০১৪ এর শেষে ঢাকায় পানির পাইপে পড়ে যাওয়া শিশু জিয়াদের মৃতদেহ আর ভূমধ্যসাগরের কূলে শিশু আয়লান কূর্দীর নিথর দেহ মিলে মিশে একাকার। তফাৎ এই যে আয়লান মরে যাওয়ার পরে ক্ষণিকের জন্য হলেও জেগে উঠেছিল বিশ্ববিবেক, আর বাংলাদেশে বেড়েছে হতাশাবেদনা। জনপ্রতিরোধ হয়ে গেছে স্তিমিত। আর এই ডিসেম্বরের গোড়াতে আরেক শিশু নীরব ম্যানহোলে পড়ে জঞ্জালের মত ভেসে গেছে বুড়িগঙ্গায়। মরে গিয়ে সম্ভবত: বেঁচেছে সে। বিস্তারিত »

সৌদি সামরিক জোটে অংশগ্রহণের ফলাফল নিয়ে প্রশ্ন

আমীর খসরু

Last 1জঙ্গীবাদী নানা সংগঠনের বিরুদ্ধে বিশ্বব্যাপী জোট গঠনের বিষয়টি একেবারে নতুন নয়। আগে আল কায়েদা জাতীয় সংগঠনের বিরুদ্ধে এ ধরনের জোট গঠনের প্রচেষ্টা ছিল। সাম্প্রতিককালে বেশ জোরেশোরে সেই স্থান দখল করেছে প্রধানত ইসলামিক স্টেট বা আইএস। তবে এসব জোট গঠনের বিষয়টি বিভিন্ন সরকারসমূহের সাথে একান্ত নিজস্বভাবে আলোচনা করেই করা হয় এবং এটির কর্মপরিকল্পনা সম্পর্কে গোপনীয়তা বজায় রাখা হয়। কিন্তু জঙ্গীবাদের বিরুদ্ধে লড়াইসংগ্রামে বিশ্বব্যাপী জনগণকে সম্পৃক্ত করার বিষয়টির সম্পূর্ণ অনুপস্থিতি লক্ষ্য করা যায়। বিস্তারিত »

বাংলাদেশের অর্থনৈতিক মুক্তির সংগ্রাম :: ইতিহাস পর্যালোচনা

. সালেহউদ্দিন আহমেদ

Last-2পৃথিবীর যেকোনো মানুষের রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক ও সামাজিক স্বাধীনতার সংগ্রামের একটি ঐতিহাসিক পটভূমিকা থাকে। সমষ্টিগত প্রতিটি জাতির এহেন সংগ্রামের ইতিহাস ঘটনাবহুল, বহু মানুষের ত্যাগ এবং ভবিষ্যৎ স্বপ্নের বাস্তবায়নের প্রচেষ্টায় সমৃদ্ধ। বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রাম, অর্থনৈতিক ও সামাজিক মুক্তির সংগ্রাম বাংলাদেশের মানুষের মনন, চিন্তা এবং সংগ্রামী কর্মেরই প্রতিফলন। এসব সংগ্রাম সবই বাংলাদেশীদের জাতীয়তাবাদী আন্দোলনের সঙ্গে ওতপ্রোতভাবেই জড়িয়ে আছে। এই নিবন্ধে আমাদের অর্থনৈতিক সংগ্রামের ঐতিহাসিক পটভূমি ও কিছু ঘটনার ওপর সংক্ষিপ্ত আলোকপাত করার চেষ্টা করছি। বিস্তারিত »

তাজউদ্দীন আহমদের রাজনৈতিক জীবন (পর্ব – ৪)

সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী

Last-3ঢাকা শহরে তাঁর থাকার বন্দোবস্ত নেই। স্কলারশিপের টাকা পান; তা পর্যাপ্ত নয়। তাই লজিংএ থাকতে হয়। সেটা কোনো সম্মানজনক ব্যবস্থা নয়, এতে থাকাখাওয়ার বিনিময়ে গৃহশিক্ষকতার দায়িত্ব থাকে। গ্রামের বাড়ী থেকে মাঝে মধ্যে কিছু টাকা আসে, তবে বোঝা যায় যে তা তিনি নিতে চান না। কমরেড ব্যাংকে এ্যাকাউন্ট ছিল; ব্যাংকটি বন্ধ হয়ে যাবে এমন আভাস পাওয়া যাচ্ছে, অর্থাৎ সেখানকার সঞ্চয় হারানোর আশঙ্কা। কিন্তু এসব সমস্যা নিয়ে তিনি যে বিচলিত তা মনে হচ্ছে না। লজিংএ থাকতে হয় বলে তাঁর ভেতর হীনমন্যতাবোধ নেই। বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রাবস্থায় ফজলুল হক হলে থাকতেন; কিন্তু এক পর্যায়ে হল ছেড়ে মেসে চলে যেতে হয়। কারণটা হাউজ টিউটরদের একজন সঠিক ভাবেই আন্দাজ করতে পেরেছিলেন। বিস্তারিত »

ট্রাম্প :: কাঠামোতে ফ্যাসিবাদী প্রবণতার উদ্ভব

মোহাম্মদ হাসান শরীফ

Dis-6অভিবাসী কিংবা পর্যটক যেকোনো পরিচয়ে মুসলমানদের যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ নিষিদ্ধ করার যে আহ্বান প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের টিকেট পেতে আগ্রহী রিপাবলিকান দলীয় ডোনাল্ড ট্রাম্প জানিয়েছেন, সেটা রাজনৈতিক দাবানল উস্কে দিয়েছে। সবচেয়ে প্রতিক্রিয়াশীল, বর্ণবাদী ও ফ্যাসিবাদী ভাবাবেগের প্রতি ট্রাম্পের প্রকাশ্য আবেদন আমেরিকার ক্ষমতাসীন এলিটদের জন্য রাজনৈতিক সঙ্কটের সৃষ্টি করেছে।

মধ্যপ্রাচ্য, মধ্য এশিয়া ও উত্তর আফ্রিকা জুড়ে যুদ্ধ ও হস্তক্ষেপকে অজুহাত হিসেবে ব্যবহার করতে ডেমোক্র্যাট ও রিপাবলিকান উভয় প্রশাসনের আমেরিকাকে ‘স্বাধীনতা’ ও ‘গণতন্ত্রে’র ত্রাণকর্তা হিসেবে অভিহিত করা সরকারি দাবিকে চূর্ণ করে দিয়েছে তার এই রূঢ় বাগাড়ম্বরতা। বিস্তারিত »