Home » রাজনীতি (page 14)

রাজনীতি

বিহারে পরাজয় :: চ্যালেঞ্জে মোদি নেতৃত্ব

আসিফ হাসান

Last-5বিহার নির্বাচন ভারতের ক্ষমতাসীন ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি) এবং রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘ (আরএসএস)-নেতৃত্বাধীন সংঘ পরিবারের মধ্যে বড় ধরনের অস্থিরতা সৃষ্টি করতে চলেছে। ২০১৪ সালের সাধারণ নির্বাচন থেকে নরেন্দ্র মোদি ও অমিত শাহ যে দোর্দণ্ড প্রতাপে সরকার আর দল দাবড়ে বেড়াচ্ছিলেন, তার রাশ বুঝি বিহারের ভরাডুবিতে অবসান হতে চলেছে। মোদি ও অমিত শাহের একনায়কতান্ত্রিক কার্যক্রমের ফলে দেড় বছর ধরে যারা কোনঠাসা রয়েছেন, তারাই এখন সোচ্চার হয়েছেন এই জুটির বিরুদ্ধে। আর বিষয়টি কেবল বিজেপির মধ্যেই সীমিত থাকবে, তাও নয়, বরং ভারতীয় রাজনীতিতেও বিভিন্ন পর্যায়ে সেটা সুস্পষ্টভাবেই অনুভূত হওয়াটাই স্বাভাবিক। বিস্তারিত »

এডিপি বাস্তবায়নের হার সর্বনিম্ন

আমাদের বুধবার প্রতিবেদন

Dis-5চলতি অর্থবছরের পাঁচ মাস পার হয়ে গেলেও বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচি (এডিপি) বাস্তবায়নে দৃশ্যমান অগ্রগতি আসেনি। এ সময় এডিপি বাস্তবায়ন হয়েছে মোট বরাদ্দের মাত্র ১৭ শতাংশ। যদিও গত অর্থবছরের একই সময়ে এডিপি বাস্তবায়নের হার ছিল ২০ শতাংশ এবং ২০১৩১৪ অর্থ বছরের প্রথম পাঁচ মাসে এ হার ছিল ১৯ শতাংশ। সে হিসাবে তিন বছরের মধ্যে এ বছর এডিপি বাস্তবায়নের হার সর্বনিম্ন। পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের বাস্তবায়ন পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন বিভাগের (আইএমইডি) প্রতিবেদনে এ চিত্র উঠে এসেছে। বিস্তারিত »

সুন্দরবন :: জনদাবি উপেক্ষিত হতেই থাকবে

আমাদের বুধবার প্রতিবেদন

Dis-4সরকার কোন জাতীয় ইস্যুতে কতটা জেদী ও অনমনীয় হতে পারে তার একটি প্রমান রামপালে নির্মানাধীন কয়লাভিত্তিক ১৩২০ মেগাওয়াট ক্ষমতা সম্পন্ন মৈত্রী সুপার থার্মাল পাওয়ার প্রজেক্ট। সরকার এক্ষেত্রে শুধু অনমনীয়ই নয়, স্পর্শকাতরও বটে। এই প্রকল্প বাস্তবায়নে এর বিরুদ্ধে কোন নাগরিক আন্দোলন সহ্য করতেও সরকার প্রস্তুত নয়। গতমাসে তেলবিদ্যুৎ ও খনিজ সম্পদ রক্ষা জাতীয় কমিটির লংমার্চ পুলিশের লাঠিপেটা ও গ্রেফতারের শিকার হয়। এই প্রজেক্ট নিয়ে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক অনুরোধউপরোধ অবলীলায় উপেক্ষা করছে সরকার। বিস্তারিত »

অপ্রতিরোধ্য অর্থ পাচার

এম. জাকির হোসেন খান

Dis-3গত বছরের ২০ জুন সুইস ন্যাশনাল ব্যাংক (এসএনবি)-র ‘ব্যাংকস ইন সুইজারল্যান্ড২০১৩’ প্রতিবেদনে ২০১২ এর তুলনায় ৬২ শতাংশ বেড়ে সুইস ব্যাংকগুলোয় বাংলাদেশিদের ৩,১৬২.৭২ কোটি টাকা গচ্ছিত থাকার সংবাদ প্রকাশিত হয়। এর আগেই আমাদের বুধবারের বিভিন্ন সংখ্যায় ‘কালো অর্থের পাচার’ সম্পর্কে বিস্তারিত প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছিল। গত ১০ ডিসেম্বর ওয়াশিংটনভিত্তিক গবেষণা প্রতিষ্ঠান গ্লোবাল ফিন্যান্সিয়াল ইন্টিগ্রিটি কর্তৃক প্রণীত ‘ইলিসিট ফিন্যান্সিয়াল ফ্লোস ফ্রম ডেভেলপিং কান্ট্রিজঃ ২০০৪১৩’ প্রতিবেদনে জানানো হয়, ২০০৪ থেকে ২০১৩ অর্থাৎ এক দশকে বাংলাদেশ থেকে বিদেশে পাচার হয়েছে ৫,৫৮৭.৭০ কোটি ডলার। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি পাচার হয়েছে ২০১৩ সালে, যার পরিমাণ ৯৬৬ কাটি ৬০ লাখ ডলার বা প্রায় ৭৫ হাজার কোটি টাকা, যা দেশের বাইরে চলে গেছে। এর আগের বছর পাচার হয় ৭২২ কোটি ৫০ লাখ ডলার। এ হিসাবে এক বছরের ব্যবধানে অবৈধ অর্থ প্রবাহ বেড়েছে ৩৩ শতাংশ। বিস্তারিত »

যে কারণে নির্জীব হয়ে গেছে ইসলামি দলগুলো

জহির উদ্দিন বাবর

Dis-2আমাদের দেশে ইসলামি ধারার রাজনীতি বিদ্যমান রয়েছে। ইসলামি দলগুলোর বরাবরই তাদের নিজস্ব বিভিন্ন ইস্যুতে ভূমিকা রয়েছে। এসব দল সাধারণত বিভিন্ন ধর্মীয় ইস্যুতে সরব হয়ে উঠে। অন্যান্য ইস্যুতে তাদের উপস্থিতি তেমন চোখে পড়ে না। সবশেষ ব্লগে ইসলাম অবমাননা ইস্যুতে সরব হয়েছিল ইসলামি দলগুলো। ২০১৩ সালে হঠাৎ করেই আন্দোলনের কেন্দ্রবিন্দুতে চলে আসে হেফাজতে ইসলাম। অরাজনৈতিক দাবি করলেও কওমি মাদরাসা কেন্দ্রিক এই সংগঠনটির মধ্যে অনেকটা বিলীন হয়ে যায় ইসলামি দলগুলো। অথচ এসব দল নিজেদের পরিচয় রেখে হেফাজতে ইসলামের ব্যানারে জড়ো হয়। বিস্তারিত »

রাষ্ট্রীয় কর্তৃত্ববাদ দিয়ে কী জঙ্গীবাদ দমন সম্ভব?

হায়দার আকবর খান রনো

Dis -1কর্তৃত্ববাদকে সাধারণত ভয়াবহ শাসন ব্যবস্থা হিসেবেই সংজ্ঞায়িত করা হয়। গত শতাব্দীর বিশ ও ত্রিশের দশকে কমিউনিস্ট আন্তর্জাতিকের দলিলসমূহে এ ধারার শাসন ব্যবস্থাকে এই ভাবেই ব্যাখ্যা করা হয়েছে। তাই অনেক তাত্ত্বিক আমাদের মতো দেশের শাসন ব্যবস্থাকে কখনই সেই ধরনের বলতে রাজি নন। আমার মতে, এই রকম সংজ্ঞা নিয়ে তর্ক অথবা কোন সংজ্ঞাকে অতি সংকীর্ণ অর্থে গ্রহণ করা নিতান্তই মুর্খতা। তৃতীয় কমিউনিস্ট আন্তর্জাতিকের সাধারণ সম্পাদক জর্জ ডিমিট্রভ (যিনি পরবর্তীতে সমাজতান্ত্রিক বুলগেরিয়ার প্রেসিডেন্ট হয়েছিলেন), এ সম্পর্কে সবচেয়ে গভীর আলোচনা করেছেন। তিনি কিন্তু বলছেন, আজকাল প্রায় সকল পুজিবাদী দেশেই কমবেশি ওই কর্তৃত্ববাদী প্রবণতা দেখা যায়। বিস্তারিত »

রাষ্ট্রকে অধিকতর নিপীড়ক করার অবিরাম প্রচেষ্টা

শাহাদত হোসেন বাচ্চু

Coverএক.আমি বলেছিলাম, ভাইয়া যদি খুব টর্চার করে? ভাইয়া বলেছিল,‘তুই তো জানিস আমি কত টাফ। ওরাও সেটা বুঝে গেছে। ওরা আমাকে ব্রেক করার জন্য এমনভাবে টর্চার করেছে বাইরে কোথাও কাটেনি, ভাঙেনি। কিন্তু ভেতরটা মনে হয় চুর চুর হয়ে গেছে! দেখিস আম্মাকে যেন বলিস না এসব কথা’। মা, তুমি জোর করলে, তাই বলে দিলাম। ভাইয়া কিন্তু মানা করেছিল(৩ সেপ্টেম্বর, শুক্রবার ১৯৭১, শহীদ জননী জাহানারা ইমামের ডায়রি)

একজন মা তার ডায়রিতে লিখেছেন, হৃদয় বিদারক এসব কথা। না, তার সেই ছেলে আর ফিরে আসেনি, যে হত্যাকারীরা তার কোল খালি করেছিল, বহু বছর তাদের বিরুদ্ধে কেউ কথা বলেনি। বিস্তারিত »