Home » রাজনীতি (page 38)

রাজনীতি

গণতন্ত্র নয় উন্নয়নের শ্লোগান :: স্বৈরতন্ত্রের জয়গান

আমাদের বুধবার বিশ্লেষক

Dis 4অর্থনীতিতে নোবেল বিজয়ী অমর্ত্য সেন গণতন্ত্র প্রসঙ্গে তিনটি কথা বলেছেন। প্রথমত, গণতন্ত্র সমুন্নত রাখতে হলে ব্যক্তি স্বাধীনতাকে অগ্রাধিকার দিতে হবে। দ্বিতীয়ত, গণতন্ত্র কতটা উৎকর্ষ লাভ করল, সে বিতর্কে না গিয়েও এর বিকাশের প্রতিই নজর দেয়া জরুরি। তৃতীয়ত, গণতন্ত্রে আলোচনা ছাড়া কিছু সম্ভব নয়। এটি তাঁর কোনো নতুন দৃষ্টিভঙ্গি নয়, গণতন্ত্র ও উন্নয়ন সম্পর্কে এত দিনকার সুচিন্তিত অভিমত পুনর্ব্যক্ত হয়েছে মাত্র। সম্প্রতি বাংলাদেশ সফরে এসে তিনি এ কথা বলেন। ‘অর্থনৈতিক উন্নয়ন ও মানবিক প্রগতি’ বক্তৃতায় তাঁর প্রদত্ত মন্তব্য আমাদের সমকালীন রাজনীতিতে বিবেচনার দাবি রাখে বটে, তা হলো মানবিক প্রগতি ও অর্থনৈতিক অগ্রযাত্রার মধ্যে একটি দ্বান্দ্বিক সম্পর্ক রয়েছে। বিস্তারিত »

ক্রীড়াঙ্গন :: ধনী আর গরিব দেশের বৈষম্য এবং করপোরেট

মোহাম্মদ হাসান শরীফ

Last 6নির্মল বিনোদন হিসেবে খেলাধুলার জুড়ি এখনো নেই। এই একটি স্থানে জাতি, ধর্ম, বর্ণ, পেশা, বয়সনির্বিশেষে সবাই একই সমতলে অবস্থান করতে পারে, জয় বা পরাজয়ে একসাথে আনন্দের উচ্ছ্বাসে ভেসে যেতে পারে কিংবা বেদনায় নীল হয়ে যেতে পারে।

তবে খেলাধুলা এখন আর অ্যামেচারদের তাক লাগানোর কোনো মাধ্যম নয়। এটা একটা পেশা। এর মাধ্যমেই অনেকে রাতারাতি বনে যাচ্ছে কোটিপতি। যে বয়সে সাধারণ কেউ কলেজের গন্ডিও পেরুতে পারে না, খেলাধুলার মাধ্যমে সেই বয়সেই সে হতে পারে মিলিয়নিয়ার এমনকি বিলিনিয়রও। বিস্তারিত »

বাংলাদেশ কি কোকেনের ট্রানজিট পয়েন্ট!

মোহাম্মদ হাসান শরীফ

Dis 4বাংলাদেশের পুলিশ জুনের শেষ দিকে চট্টগ্রাম বন্দরে এশিয়ার এ যাবৎকালের বৃহত্তম তরল কোকেনের চালান আটক করেছে। পুলিশ বলছে, চালানটি যাওয়ার কথা ছিল ভারতে। মাদক চক্র দক্ষিণ এশিয়ায় তাদের ব্যবসা বাড়িয়ে চলেছে, এই ঘটনা সেই ইঙ্গিতই দিচ্ছে।

১৪ মিলিয়ন ডলার মূল্যের এই কোকেনের চূড়ান্ত গন্তব্য ভারত ছিল কিনা কিংবা তা এশিয়া বা ইউরোপের অন্য কোনো দেশে পাচারের জন্য ট্রানজিট হিসেবে ব্যবহৃত হতে যাচ্ছিল কিনা তা নিশ্চিতভাবে জানা যায়নি। বিস্তারিত »

সড়ক দুর্ঘটনা :: ওরা শুধুই সংখ্যা

এম. জাকির হোসেন খান

Dis 3ঈদ পূর্ব এবং পরবর্তী যাত্রায় ১৫ জুলাই থেকে ২৫ জুলাই পর্যন্ত মহাসড়কে সংঘটিত প্রায় ২০০ সড়ক দুর্ঘটনায় ২৫০ জন মানুষ নির্মমভাবে নিহত হন। অর্থাৎ প্রতিদিন গড়ে ২৪টি প্রাণ হারিয়ে গেছে। আহত হয়েছে শত শত মানুষ যাদের অনেকেই সারা জীবনের জন্য কর্মক্ষমতা হারিয়ে ফেলেছেন। ঈদযাত্রায় মহাসড়কে প্রাণহানির এ সংখ্যা গত কয়েক বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ। উল্লেখ্য ‘ঈদুল ফিতরের সময় দুর্ঘটনায় ২০১৪ সালে ৬৭ জন, ২০১৩ সালে ৫২ জন, ২০১২ সালে ৪২ জন, ২০১১ সালে ৪৮ জন এবং ২০১০ সালে ৬৩ জন মৃত্যুবরণ করেন’। এরই প্রেক্ষিতে, সরকার মহাসড়কে অটো রিক্সা নিষিদ্ধ ঘোষনা করে এবং যথারীতি মিডিয়া প্রেমিক যোগাযোগ মন্ত্রী নতুন আইন প্রণয়নের মাধ্যমে মহাসড়কে মৃত্যুর মিছিল রোধ করার ‘স্বপ্ন’দেখান। বিস্তারিত »

সড়ক দুর্ঘটনা :: মৃত্যু সংখ্যা চলমান যুদ্ধের চেয়েও বেশি

দুনিয়ার এক একটি দেশে চলমান যুদ্ধ বা গৃহ যুদ্ধে প্রতিদিন যত না মানুষের মৃত্যু হয়, তার চেয়ে আনুপাতিক হারে বেশি মানুষের মৃত্যু হয় আমাদের দেশে শুধুমাত্র সড়ক দুর্ঘটনায়

আমাদের বুধবার প্রতিবেদন

Dis 2সিরাজগঞ্জ, মাদারীপুর, কুমিল্লা ও ফরিদপুরে ঝুঁকিপূর্ণ ২৭১ কিলোমিটার সড়কে গত এক বছরে দুর্ঘটনায় অন্তত ৩৪৬ জন নিহত হয়েছেন। ছোটবড় দুর্ঘটনায় এসব এলাকায় আহতের সংখ্যা প্রায় এক হাজার। মহাসড়কগুলো মৃত্যুফাঁদে পরিণত হয়েছে। এসব সড়ক পরিবহন শ্রমিক ও যাত্রীদের জন্য আতংকের নাম হয়ে দাঁড়িয়েছে। ঝুঁকিপূর্ণ বাঁক, রাস্তা দখল করে হাটবাজার, সরু রাস্তা, মহাসড়কে ধীরগতির ছোট যানবাহন চলাচলসহ আরও কিছু কারণে প্রায়ই দুর্ঘটনা ঘটছে। এছাড়া সড়কের ট্রাফিক অব্যবস্থাপনা ও চালকের বেপরোয়া মনোভাবের কারণে সংবাদ মাধ্যমের খবর অনুযায়ীই গত ২৫ দিনে সারাদেশে অন্তত ৩ শ’ জনের মৃত্যু হয়েছে। স্থানীয়দের মতে, সড়ক দুর্ঘটনা কমিয়ে আনতে প্রশাসন কঠোর অবস্থানে না থাকায় সড়কে মানুষের মৃত্যুর মিছিল প্রতিনিয়ত দীর্ঘ হচ্ছে। বিস্তারিত »

নষ্ট-ভ্রষ্ট রাজনীতি কিভাবে নিয়ে যাচ্ছে তরুণদের বিপথে

শাহাদত হোসেন বাচ্চু

Dis 1বাংলাদেশের তারুণ্য এক অসামান্য ঐতিহ্যের উত্তরাধিকার। আমাদের তরুণরা মায়ের ভাষাকে রক্ষা করেছে বিজাতীয় শোষকদের হাত থেকে। এই ঘটনায় সারা বিশ্বে তরুণ ভাষা শহীদরা অমর। শিক্ষাকে রক্ষা করেছে এই তরুণরা ষাটের দশকে বাষট্টির শিক্ষা কমিশন আন্দোলনে। সিয়াটোসেন্টো চুক্তির বিরুদ্ধে লড়েছে, সাম্রাজ্যবাদের বিরুদ্ধে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে। ৬৯’র জানুয়ারিতে তরুণ আসাদ শহীদ হয়ে যে গণঅভ্যুত্থানের সূচনা ঘটিয়েছিলেন, তা ভাসিয়ে দিয়েছিল সামরিকসিভিল স্বৈরাচারকে। তৈরী হয়ে গিয়েছিল একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধের প্রেক্ষাপট। বিস্তারিত »

স্বৈরতন্ত্র না গণতন্ত্র?

ইকোনমিস্ট থেকে অনুবাদ

Last 5পূর্ব এশিয়ায় ১৯৫০ থেকে ২০০৫ পর্যন্ত প্রকৃত আয় বাড়ে সাত গুণ। ইন্দোনেশিয়া, দক্ষিণ কোরিয়া, মঙ্গোলিয়া ও ফিলিপাইনের মতো এই অঞ্চলের দেশগুলোতে গণতন্ত্রও বিকশিত হয়েছে। সর্বোচ্চ আয় স্তর এবং অত্যাধুনিক প্রযুক্তিসংবলিত দুই এশিয়ান অর্থনীতি জাপান ও দক্ষিণ কোরিয়া ‘পূর্ণ গণতান্ত্রিক দেশ’ (দেখুন চার্ট)। বর্তমান বিশ্বের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অর্থনীতির দেশ ভারতে ১৯৪৭ সালে স্বাধীনতা পাওয়ার পর থেকেই প্রায় পুরো সময় গণতান্ত্রিকব্যবস্থা প্রতিষ্ঠিত রয়েছে। বিস্তারিত »