Home » রাজনীতি (page 59)

রাজনীতি

সংলাপের কথা বলে ইচ্ছাকৃত সময়ক্ষেপণ

আমীর খসরু

COVERবাংলাদেশের রাজনীতি এবং রাজনৈতিক নেতৃত্বের শাসনের মস্তবড় একটি দুর্বলতার দিক হচ্ছে ক্ষমতাসীনরা সব সময়ই নির্দিষ্ট মেয়াদ শেষে ক্ষমতার সুষ্ঠু এবং স্বাভাবিক পালাবদলের ক্ষেত্রে প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি করে। এই প্রতিবন্ধকতা বা বাধা সৃষ্টির মূল কারণ, শাসনকালে তারা জনগণকে দেয়া নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি পালন করে না এবং এ কারণেই জনগণের প্রতি তাদের তীব্র অবিশ্বাস ও নিজেদের আস্থাহীনতায় ভোগে। প্রতিনিধিত্বশীল শাসন ব্যবস্থার উদ্যোক্তা রাষ্ট্র বিজ্ঞানীরা ওই ব্যবস্থা আসলে কতোটুকু প্রতিনিধিত্বশীল হিসেবে কার্যকর হবে তা নিয়ে কমবেশি সব সময়ই সংশয় প্রকাশ করেছেন। আর একই ভাবে প্রায়োগিক ক্ষেত্রে এই ব্যবস্থার কি কি দুর্বলতার দিকগুলো থাকতে পারে, সে বিষয়েও সব সময় সতর্ক ছিলেন। কালোক্রমে দেখা গেছে, প্রায়োগিক ক্ষেত্রে দুর্বল গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র ব্যবস্থাগুলোতে প্রতিনিধিত্বশীল শাসন আসলে সত্যিকার অর্থে জনপ্রতিনিধিত্বশীল শাসনকে নিশ্চিত করে না। বিস্তারিত »

হায় গণতন্ত্র ॥ বড় অসহায় বোধ করি

হায়দার আকবর খান রনো

dis 1বিএনপি প্রধান ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে সরকার তার নিজ কার্যালয়ে তালা মেরে, বালুইটের ট্রাক দিয়ে, পিপার স্প্রে ছড়িয়ে, বিপুল সংখ্যক র‌্যাবপুলিশ মোতায়েন করে অবরুদ্ধ করে রেখেছে। অবশ্য মন্ত্রী মায়া বলেছেন যে, এসব বালু ও ইটের ট্রাক আনা হয়েছে খালেদা জিয়ার অফিসবাড়ি সংস্কারের জন্য। রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ পর্যায়ে যখন এমন মিথ্যাচার হয় তখন আমরা বড় অসহায় বোধ করি। বিএনপি ৫ জানুয়ারি যে সভা করার অনুমতি চেয়ে পুলিশের কাছে আবেদন করেছিল তা পাওয়া যায়নি। পুলিশ প্রশাসনের দফতরে বিএনপি নেতারা কয়েকবার গিয়েও কোনো কর্মকর্তার দেখা পাননি। এদিকে আওয়ামী লীগছাত্রলীগ ঘোষণা দিয়েছিল, তারা বিএনপিকে সভা করতে দেবে না। রাজনৈতিক প্রতিপক্ষকে সভা পর্যন্ত করতে না দিয়ে তারা বলবেন, ‘এই হলো গণতন্ত্র’। বিস্তারিত »

সন্ত্রাসী রাজনীতি লুটেরা অর্থনীতি

আনু মুহাম্মদ

last 1২০১৪ সালের শুরুই সাধারণ নির্বাচন ঘিরে অনিশ্চয়তা আর সহিংসতা দিয়ে। সেই নির্বাচনের মধ্য দিয়েই বর্তমান সরকার গঠিত হয়েছে। যেভাবে নির্বাচন হয়েছে তাতে বর্তমান সরকারকে স্বনির্বাচিত বলাই শ্রেয়। সরকারি দলের লোকজনদের এই যুক্তির সাথে আমি একমত যে, নির্বাচন না হলে অনির্বাচিত সরকার ক্ষমতা দখল করতো, তাতে বিপদ আরও বাড়তো। কিন্তু যেভাবে নির্বাচন হয়েছে তার বিকল্প ‘নির্বাচন না হওয়া’ ছিলো না, ছিলো ‘যথাযথ নির্বাচন হওয়া’। আমরা সবাই জানি যে, বাংলাদেশে নির্বাচন প্রক্রিয়ার যে দশা, সমাজে চোরাই টাকা আর সন্ত্রাস যেভাবে রাজনীতির পরিচালিকা শক্তি, তাতে সকল দলের অংশগ্রহণ হলেই যথাযথ নির্বাচন আশা করা যায় না। কিন্তু তার কারণে একচেটিয়া নির্বাচনের যৌক্তিকতা তৈরি হয় না। বিস্তারিত »

বেসামরিক শাসন কেন বার বার হোঁচট খায়

আমীর খসরু

last 1বাংলাদেশ স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হওয়া সত্ত্বেও আগের রাষ্ট্র কাঠামোটির কাছ থেকে এদেশের শাসকরা অগণতান্ত্রিক শাসন, জনগণের অধিকারের প্রতি অবজ্ঞা, বাকব্যক্তি স্বাধীনতা হরণসহ সমস্ত অগণতান্ত্রিক বিষয়গুলো পেয়ে গেছে উত্তরাধিকার সূত্রে স্বয়ংক্রিয়ভাবে। অথচ এর বিপরীতটিই হওয়ার কথা ছিল। যে রাষ্ট্রটি পাওয়া গেল তা জনগণকে সাথে নিয়ে দীর্ঘমেয়াদী লড়াইসংগ্রাম এবং সশস্ত্র রক্তাক্ত যুদ্ধের পরেও কখনই জনগণের হয়ে উঠতে পারেনি এবং এমন চেষ্টাটিও তাদের দিক থেকে ছিল না। আগের শাসন ব্যবস্থাটির ভেতরকার অগণতান্ত্রিক, গণতন্ত্র বিরোধী মনমানসিকতা এবং যাবতীয় অন্তর্গত দুর্বলতার বিষয়গুলো শাসকদের মনোজগতের গহীন ভেতরে বাসা বেধেছিল ও তারা এগুলো লালন করছিলেন। বিস্তারিত »

রাজনৈতিক সঙ্কটে প্রভাবশালী দেশগুলোর ভূমিকার নেপথ্যে

আমীর খসরু

last 1গত বছরের ৫ জানুয়ারি যখন অধিকাংশ রাজনৈতিক দলকে কৌশলে বাইরে রেখে, আগেপরে অত্যাচারনির্যাতন চালিয়ে, সংঘাতসহিংসতার চূড়ান্ত পন্থা বেছে নিয়ে, ভোটার ও ভোটবিহীন একটি নির্বাচন অনুষ্ঠানের আয়োজন সম্পন্ন করা হচ্ছিল তখন পার্শ্ববর্তী দেশটি বাদে দুনিয়ার এমন কোনো দেশ নেই যারা ওই নির্বাচন এবং এর পুরো প্রক্রিয়ার বিরোধীতা করেনি। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ফ্রান্স, জার্মানি, যুক্তরাজ্য থেকে শুরু করে ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত দেশগুলোসহ সবাই একবাক্যে সরকারকে বলেছিল সমান সুযোগ প্রদানের মধ্যদিয়ে সব দলের অংশগ্রহণে একটি অবাধ, সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠিত হোক। বিস্তারিত »

রাজনৈতিক কারণে হত্যাকাণ্ড

তিন দশকে রাজনীতিবিদ নয় তৈরি হয়েছে গডফাদার

শাহাদত হোসেন বাচ্চু

last 2তেতাল্লিশ বছর আগে বাংলাদেশ স্বাধীন হয়েছিল ৩০ লাখ মানুষের প্রাণের বিনিময়ে। গণহত্যা করেছিল পাকিস্তানী হানাদার, আলবদর ও রাজাকাররা। সেটি ছিল একটি সর্বগ্রাসী যুদ্ধ। যা বাঙালী জাতির ওপর চাপিয়ে দিয়েছিল পাকিস্তানী শাসকগোষ্ঠি। সেটি ছিল জাতীয় মুক্তি, অস্তিত্ব আর বেঁচে থাকার লড়াই। বাঙালী জয়ী হয়েছিল হাজার বছরের ইতিহাসে কয়েকবার মাত্র। কিন্তু ঐ জয় সবচেয়ে স্মরণীয় এবং এর মধ্য দিয়ে জন্ম হয়েছিল একটি স্বাধীন রাষ্ট্র ও জাতির। বিনিময়ে জীবন দিতে হয়েছিল অকাতরে। স্বাধীনতার পরেও হত্যাকান্ডের এই ধারাটি অব্যাহত থেকে যায়। গত তেতাল্লিশ বছরে খুন হয়েছে লক্ষাধিক মানুষ। সংখ্যাটি কেউ বলেন এক লাখ, কেউ বলেন দেড় লাখ, কেউ বা বলেন দুই লাখেরও বেশি। রক্ষণশীল হিসেবে সংখ্যাটি লেখা হয়েছে লক্ষাধিক। বিস্তারিত »

শক্তি প্রয়োগই মূল তন্ত্র

আবীর হাসান

dis 4গণতন্ত্র নেই তাই অনিবার্য নৈরাজ্যের প্রকোপ চলছে। ঠেকিয়ে রাখতে রাখতে আর ঠেকল না। সময় পেরিয়ে যাচ্ছে বেড়েছে দেশের বয়স এবং সময়ের মানুষদের বয়সও বাড়ছে, ক্ষমতাসীনক্ষমতাহীন রাজনীতিবিদরাও এর বাইরে নন, যদিও তারা মানতে চাচ্ছেন না। আর ঠিক এই কারণেই বাংলাদেশে গণতন্ত্রের বয়স বাড়ে না, বাড়তে পারেনি। বার বার ফিরে এসেছে ভয়ঙ্কর প্রাণঘাতী নৈরাজ্য পরস্পর বিরোধী নৈরাজ্য। নৈরাজ্য সবাই করছেন। ক্ষমতা টিকিয়ে রাখার জন্য ক্ষমতাসীনরা বেছে নিয়েছেন নৈরাজ্যের পথ। বিগত সাত বছরে সর্বময় কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠা করার জন্য তারা যা করেছেন, তারা যা বলেছেন, তাতে গণতন্ত্রের সহিষ্ণু স্বচ্ছতা, জবাবদিহিতা বলতে কিছুই ছিল না। বিস্তারিত »