Home » শিল্প-সংস্কৃতি (page 18)

শিল্প-সংস্কৃতি

টিভি চ্যানেলের লাইসেন্স :: রাজনৈতিক আনুগত্যের বাণিজ্য

ফ্লোরা সরকার

political-tv-channelsবেসরকারি টেলিভিশনের রাজনৈতিক লাইসেন্স” শিরোনামে গত ২০ অক্টোবর, ২০১৩, প্রথম আলো পত্রিকায় প্রকাশিত খবরে জানা যায় শেষ সময়ে আরো একটি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলের লাইসেন্স দিয়েছে সরকার। রাজনৈতিক বিবেচনায় দেয়া সর্বশেষ এই চ্যানেলের নাম ৫২ (বায়ান্ন)। উল্লেখিত খবরে আরো জানা যায়, আওয়ামী লীগের প্রয়াত নেতা আব্দুল মালেক উকিলের ছেলে বাহারউদ্দিন খেলনের স্ত্রীর নামে দেয়া হয়েছে এই লাইসেন্স। তার সঙ্গে রয়েছে বেঙ্গল গ্রুপ। বাহারউদ্দিন বর্তমানে বিটিভির উপপরিচালক (বার্তা)। টিভি চ্যানেল স্থাপন এবং পরিচালনায় আর্থিক সঙ্গতি নেই তার। তাছাড়া সরকারি কর্মকর্তা হিসেবে লাইসেন্স পেতে পারেন না। তাই বেঙ্গল গ্রুপকে অর্থায়নকারী হিসেবে সঙ্গে নিয়ে গঠন করেন ‘বেঙ্গল টেলিভিশন চ্যানেল লিমিটেড’ নামে একটি কোম্পানি। তথ্যমন্ত্রণালয় থেকে গত ১ অক্টোবর এই কোম্পানির নামে দেয়া হয় লাইসেন্স। বিস্তারিত »

হত্যার জন্যে যাদের জন্ম তাদের ছবি – ‘ফুল মেটাল জ্যাকেট’

ফ্লোরা সরকার

full-metal-jacket-posterফুল মেটাল জ্যাকেট’ ছবির শেষ দৃশ্যের আগের দৃশ্যে ভিয়েতনামের যোদ্ধা মেয়েটি গুলি খেয়ে মূমুর্ষূ অবস্থায় যখন তাকে ঘিরে রাখা মার্কিন বাহিনীকে ক্ষীণ কন্ঠে বার বার বলে যায় “শুট মি —-শুট মি—”ঠিক তখন মনে পড়ে যায় ছবির প্রথম অংশের একটি দৃশ্যের কথা। যে দৃশ্যে সার্জেন্ট হার্টম্যান মেরিন সেনাদের বা নৌসেনাদের ট্রেনিং শেষে উপদেশ বাণীতে বলেন তোমাদের মধ্যে প্রায় সবাই এখন ভিয়েতনাম যুদ্ধে যাবে। অনেকে ফিরে নাও আসতে পারে। মেরিনেরা মারা যায়। আর এই মৃত্যুর জন্যেই তাদের এখানে (যুদ্ধের প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে) আসা। কিন্তু মনে রেখো একজন মেরিন মারা যেতে পারে কিন্তু মেরিন বাহিনীর কোন মৃত্যু নেই। মেরিনরা অর্থাৎ তোমরা মৃত্যুহীন প্রাণ”। হার্টম্যানের কথাগুলো ছবির সেই দৃশ্যে নায়কের মনে না পড়লেও দর্শকের মনে পড়ে যায় আর তার ঠিক পরেই দেখি নায়ক মেয়েটিকে গুলি করে হত্যা করে। আর এভাবেই শেষ হয় “ফুল মেটাল জ্যাকেট” ছবি। যে হত্যা ছাড়া করণীয় কিছু নেই। সাম্রজ্যবাদী দেশগুলোর যুদ্ধই একমাত্র হাতিয়ার, যে হাতিয়ার নিয়ে তারা টিকে ছিলো এবং থাকে যুগ যুগ ধরে। বিস্তারিত »

পহেলা কার্তিক ফকির লালন শাহের তিরোধান দিবস

ফকির লালন শাহকে ‘বর্তমান’ করে তোলা

ফরহাদ মজহার

fokir-lalon-shahবাজার ব্যবস্থায় সবকিছুই পণ্য হয়ে ওঠে, লালন ব্যতিক্রম কেউ নন। ফলে লালন সাধক ছিলেন বলে তাকে নিয়ে সিডি, ভিডিও বা সিনেমার ব্যবসা হবে না, এই গ্যারান্টি দেওয়া কঠিন। তাকে নিয়ে বিনিয়োগ ও বাণিজ্য হচ্ছে, এটা অস্বীকার করার উপায় নাই। লালন সাঁইজীকে বাজারের বিষয়ে পরিণত করার বিরোধিতা করেন অনেকে। অভিযোগ ওঠে, লালন কর্পোরেট বাণিজ্যের বিষয়ে পরিণত হয়ে যাচ্ছেন। আপত্তিকর মনে হয়। আপত্তি ওঠা স্বাভাবিক। ফলে ফকির লালন শাহকে বাজারের দূষণ থেকে বিশুদ্ধ রাখার একটি বাসনা ও চেষ্টা দানা বেঁধে উঠতেই পারে। লালন নিয়ে একটা বাজারি আগ্রহ যেমন তৈরি হয়েছে, ঠিক তেমনি একটা উদ্বিগ্নতাও আছে। বিস্তারিত »

ঋত্বিক ঘটকের ‘মেঘে ঢাকা তারা’

পার্থ চট্টোপাধ্যায়

অনুবাদ: হিল্লোল দত্ত

ritwik-ghatakতৈরির বছর পঞ্চাশেক পরেও কারুকৃতির জন্যে মনে রাখা হয়েছে এমন ছবির সংখ্যা খুব একটা বেশি নয়; যেগুলোর ব্যাপারে এক সময় ভাবা হতো এগুলোর সবচাইতে গুরুত্বপূর্ণ এবং মহান ছবির সবকটি গুণ আছে। হয়তো পঞ্চাশ বছর বাদে দেখা গেল সে সবই মরীচিকা। সুখের বিষয়, ১৪ এপ্রিল ১৯৬০এ কলকাতায় মুক্তি পাওয়া ঋত্বিক ঘটকের বাংলা ছবি মেঘে ঢাকা তারার ক্ষেত্রে এ রকম কিছু ঘটেনি। ছবিটির শক্তি, প্রাঞ্জলতা আর হরেক সংস্কৃতি আর পটভূমি থেকে আসা নানান দর্শককে সমানভাবে নাড়া দেয়ার ক্ষমতা আজও অটুট। এদিক থেকে দেখলে চলচ্চিত্রের নির্ভরযোগ্য মহৎ সৃষ্টির ভেতরে এটা ঠাঁই করে নিয়েছে। বিস্তারিত »

ইরানের কিংবদন্তী চিত্রনির্মাতা আব্বাস কিয়ারসতামির সাক্ষাৎকার

সাধারণ নাগরিক হিসেবেও সেন্সরশীপ আরোপিত হয়ে আছে

ফ্লোরা সরকার

abbas-iran১৯৪০ সালে ইরানের তেহরানে আন্তর্জাতিক খ্যাত চিত্রনির্মাতা আব্বাস কিয়ারসতামি জন্ম গ্রহণ করেন। ইরানের বিশ্ববিদ্যালয় থেকে তিনি ফাইন আর্টস এ গ্র্যাজুয়েশন করার পর গ্র্যাফিক ডিজাইনার হিসেবে তার কর্মজীবন শুরু করেন। তিরিশ বছয় বয়সে সেন্টার ফর ইন্টেলেকচুয়াল ডেভেলপমেন্ট অফ চিল্ড্রেন অ্যান্ড অ্যাডাল্টস এর ফিল্ম সেকশানে যোগদান করেন এবং তখন থেকেই চিত্রনির্মাতা হিসেবে তার আত্মপ্রকাশ ঘটতে থাকে। সেখানে বেশ কিছু শিশুতোষ এবং ডকুমেন্টারি নির্মাণের পর ১৯৭৩ সালে নির্মাণ করেন পূর্ণ দৈর্ঘ্য ছবি ‘দ্য এক্সপেরিয়েন্স’। বিস্তারিত »

বাস্তবতা-অবাস্তবতার লৌহ মানবী

ফ্লোরা সরকার

the-iron-ladyতিন তিন বার নির্বাচিত ব্রিটেনের প্রথম নারীপ্রধানমন্ত্রী এবং বিশ্বে ‘লৌহ মানবী’ নামে খ্যাত মার্গারেট থ্যাচারের জীবনভিত্তিক চলচ্চিত্র “দ্য আইরন লেডি” র প্রথম দৃশ্য দেখে চমকে যেতে হয় আর সম্পূর্ণ ছবিটা দেখে হতে হয় বোকা। শুরুতেই দেখা যায় সত্তর উর্দ্ধ একজন বয়স্ক নারী (মার্গারেট থ্যাচার) একটি ডিপার্টমেন্টাল স্টোর থেকে এক পিন্ট দুধ কেনেন। দুধের দাম ঊনপঞ্চাশ পেনি শুনে চোখ দুটো যেন বিস্ফারিত হয়ে ওঠে বৃদ্ধার। বাড়িতে যেয়ে দুধের দামের উর্দ্ধগতির কথা বিরক্তি নিয়ে স্বামীকে জানান। মার্গারেট থ্যাচার সত্তরের দশকে যখন শিক্ষামন্ত্রীর পদে আসীন ছিলেন তখন বিদ্যালয়ের দুধ বিতরণ ব্যবস্থা বন্ধ করার বিষয়টি ছবির পরিচালক ভুলে গেলেও দর্শক ভুলতে পারেননি। বিস্তারিত »

আনোয়ার হোসেন – একটি প্রতিনিধিত্বকারী যুগের অবসান

ফ্লোরা সরকার

anwar hossainআমাদের দেশে বিভিন্ন পেশায় নিয়োজিত নাগরিকদের মাঝে নিম্নবর্গের পেশাজীবীদের পরেই সব থেকে যারা নিগৃহীত ও অবহেলিত তারা হলেন শিল্প ও সংস্কৃতিতে নিয়োজিত বিভিন্ন শিল্পী কলাকুশলীবৃন্দ। তাদের বর্ণময়,কর্মময় জীবনের আনন্দ উচ্ছাসটুকু দর্শক শ্রোতরা নিঃশেষে শুষে নেন। কিন্তু পর্দার আড়ালে চলে গেলেই তাদের মূল্য মূল্যহীন হয়ে পড়ে। একজন কায়িক শ্রমিকের সঙ্গে একজন শিল্পী বিশেষত অভিনয় শিল্পীর শ্রমের মাঝে কোন পার্থক্য নেই। বরং বলা চলে একজন কায়িক শ্রমিকের চাইতে একজন অভিনয় শিল্পীর পরিশ্রম তুলনামূলক ভাবে অনেক বেশি। কেননা, একজন অভিনয় শিল্পীকে শুধু কায়িক শ্রম দিলেই চলেনা, একইসঙ্গে মানসিক শ্রমও ব্যয় করতে হয়। বিস্তারিত »