Home » মতামত (page 18)

মতামত

ছাত্রলীগ সম্পর্কে শিক্ষার্থীদের প্রতিক্রিয়া

আমাদের বুধবার প্রতিবেদন

students-opinionঐতিহ্যবাহী ছাত্র সংগঠন ছাত্রলীগ এখন তার ঐতিহ্য হারিয়েছে। এই ছাত্র সংগঠনটির কর্মকাণ্ড নিয়ে শিক্ষকশিক্ষার্থীসহ সাধারণ মানুষের মধ্যে নানা বিরূপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি করেছে। কয়েকজন শিক্ষার্থী সে কথাই জানিয়েছেন আমাদের বুধবারকে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী অমিয় কুমার বালা বলেন, ছাত্রলীগ এক আতঙ্কের নাম। তাদের অব্যাহত সন্ত্রাস, চাঁদাবাজি, টেন্ডারবাজিতে দেশের শিক্ষাকার্যক্রম এবং শিক্ষাঙ্গনের উন্নয়ন ব্যাহত হচ্ছে। হেন অপকর্ম নেই যার সাথে সংগঠনটির নাম জড়িত নয়। ঢাকা মেডিকেল কলেজ, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে তাদের হাতে নিহত হয়েছে নিজ সংগঠনের কয়েকজন নেতাকর্মী। বিস্তারিত »

ত্বকী খুনের বিচার আদৌ হবে কি?

তারিক মাহমুদ

Tokiত্বকী খুন হয়েছেন ৬ মাস পেরিয়ে গেছে। কিন্তু এখনো পর্যন্ত খুনিদের গ্রেফতার বা আইনের আওতায় আনা সম্ভব হয়নি। পুলিশ গোয়েন্দ সংস্থা হয়ে র‍্যাব মামলাটির দায়িত্ব গ্রহন করেছে, তাও অনেক দিন হলো। অগ্রগতি বলতে শুধুমাত্র একজনের জবানবন্দি পত্রপত্রিকায় প্রকাশিত হয়েছে। এই পর্যন্তই। এর বেশি কিছু এখনো পর্যন্ত দৃশ্যমান নয়। প্রশ্ন দেখা দিয়েছে: এই খুনের বিচার আদৌ হবে কিনা। বিস্তারিত »

চরম এই সঙ্কটে সামাজিক ও পেশাজীবী শক্তি কোথায়?

শাহাদত হোসেন বাচ্চু

weপঞ্চাশ দশক থেকে আমাদের মুক্তিযুদ্ধ পর্যন্ত সকল আন্দোলন সংগ্রাম, এমনকি একটি সশস্ত্র যুদ্ধের সংগঠক হয়ে উঠেছিল এদেশের সামাজিক শক্তিগুলি প্রধানত: ছাত্র সমাজ। অনেকেই ভুরু কোঁচকাতে পারেন যে, আন্দোলন সংগ্রামে রাজনৈতিক নেতৃত্বের ভূমিকা ছাড়া এগুলি কিভাবে সংগঠিত এবং বাস্তবায়িত হয়েছে? ৫২’র ভাষা আন্দোলন থেকে শুরু করে ৬২’র শিক্ষা কমিশন আন্দোলন, ৬৯’র গণঅভ্যূত্থান এবং এ সকল গণআন্দোলন ও সংগ্রামের ধারাবাহিকতায় ৭১’র সশস্ত্র মুক্তিযুদ্ধের মত বিশাল রাজনৈতিক এজেন্ডা বাস্তবায়নে রাজনৈতিক নেতৃত্বের ভূমিকা নিয়ে কোন প্রশ্ন থাকার কথা নয়। বিস্তারিত »

রাষ্ট্রটি দখলদারদের কোনোক্রমেই যৌনকর্মীদের নয়

আমীর খসরু

brothel১৯৮০ দশকের শুরুতে নারায়ণগঞ্জের টানবাজার এবং ঢাকার রথখোলার কান্দুপট্টির দীর্ঘকালীন ‘সংরক্ষিত এলাকা’ যাকে অনেকে নিষিদ্ধ পল্লী বা যৌনপল্লী বলেন, তা ভেঙে ফেলা হলো ধর্মের দোহাই দিয়ে। ওই এলাকাসহ আশপাশের এলাকাগুলোর মানুষজন এই কাজটি ‘অপবিত্র’ এমন একটা দোহাই দিয়ে অসংখ্য নারী এবং তাদের সন্তানাদিদের উচ্ছেদ করলেন জোর খাটিয়ে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তখন এই উচ্ছেদকারীদেরই পক্ষ নিয়েছিল। আমি তখন সাপ্তাহিক বিচিত্রায় কাজ করি এবং এই প্রতিবেদন তৈরি করার জন্য ওই সব এলাকায় যাওয়ার পরে জীবন বাঁচানোর দায়ে, প্রতারণার শিকার হয়ে কিংবা অন্য কারণে জীবনের এই ভুল ঠিকানায় যেতে বাধ্য হওয়া, সমাজের কাছে অচ্ছ্যুত নারীদের সহায়সম্বল অর্থাৎ, শেষটুকুও হারিয়ে বুকফাটা কান্নায় এলাকা ত্যাগ করতে দেখেছি। বিস্তারিত »

সমঝোতায় বাধা ও বিরূপ প্রভাব সৃষ্টিকারী সিদ্ধান্ত

. আকবর আলি খানএর বিশ্লেষণ

hasina-5প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সচিবদের সভায় আগামী নির্বাচন সম্পর্কে যে ঘোষণা দিয়েছেন তা তিন ভাগে বিশ্লেষণ করা যেতে পারে। প্রথম বিষয়টি হচ্ছে এটা করার কি প্রয়োজন ছিল। আসলে বর্তমান সংবিধানে যে বিধান রয়েছে সে অনুসারে মন্ত্রিসভা আগামী ২৪ জানুয়ারি পর্যন্ত ক্ষমতায় থাকতে পারে এবং ২৪ জানুয়ারি পূর্ববর্তী সময়সীমার মধ্যে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। তবে যেটা সংবিধানে বলা নেই, সে সময় যে সরকারটি থাকবে তাদের উপরে নির্বাচনকালীন কোনো বিধিনিষেধ থাকবে কিনা। সংবিধানে প্রকৃতপক্ষে কোনো বিধিনিষেধ বা বাধ্যবাধকতা বর্তমান সরকারের উপর নেই। তবে বর্তমান সরকার নির্বাচনকালীন সময়ে নিজেরাই কিছু বিধিনিষেধ আরোপ করেছে। বিস্তারিত »

ফুলবাড়ী গণঅভ্যুত্থান – জনগণের সম্পদ জনগণের কর্তৃত্ব

আনু মুহাম্মদ

fulbariঐতিহাসিক ফুলবাড়ী গণঅভ্যুত্থানের সাতবছর পূর্তি হলো। এর স্মরণে এবছরও দেশজুড়ে পালিত হলো ২৬ আগষ্ট ‘ফুলবাড়ী দিবস’। ২০০৬ সালের এইদিনে পানিসম্পদ, আবাদী জমি ও মানুষ বিনাশী ফুলবাড়ী কয়লা প্রকল্পের বিরুদ্ধে বাঙালি আদিবাসী নারী পুরুষ শিশু বৃদ্ধসহ সকল মানুষের প্রতিবাদ বিশাল আকার নিয়েছিলো। লক্ষ মানুষের শান্তিপূর্ণ সমাবেশ সমাপ্তি ঘোষণার পরও সরকারি বাহিনীর পাইকারি গুলিতে তিনজন তরুণ নিহত হন, গুলিবিদ্ধসহ আহত হন দুই শতাধিক। এরপর পুরো অঞ্চলের নারীপুরুষেরা গণঅভ্যুত্থানের এক অসাধারণ পর্ব তৈরি করেন, সারাদেশে তা ছড়িয়ে পড়ে। এক পর্যায়ে ৩০ আগষ্ট ২০০৬ সরকার জনগণের সাথে চুক্তি স্বাক্ষর করতে বাধ্য হয়। বিস্তারিত »

বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের দলাদলি মর্মান্তিক

অধ্যাপক সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী এবং অধ্যাপক আনিসুজ্জামানএর প্রতিক্রিয়া

university-movementবিশ্ববিদ্যালগুলোতে এমনিতেই ক্ষমতাসীন দলের ছাত্র সংগঠনের সন্ত্রাস, ভর্তি বাণিজ্য, চাঁদাবাজিসহ নানাবিধ কর্মকাণ্ডের কারণে শিক্ষার পরিবেশ বিঘ্নিত হচ্ছে। এর সঙ্গে যুক্ত হয়েছে একশ্রেণীর শিক্ষকদের দলাদলি। এরও শিকার হচ্ছেন শিক্ষার্থীরা। এই পরিস্থিতিতে পুরো শিক্ষার পরিবেশই হচ্ছে বিঘ্নিত। শিক্ষকদের এই দলাদলি সম্পর্কে দু’জন খ্যাতিমান শিক্ষাবিদ অধ্যাপক সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী এবং অধ্যাপক আনিসুজ্জামান তাদের প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন আমাদের বুধবার এর কাছে। বিস্তারিত »